Home / উপজেলা সংবাদ / মতলব দক্ষিণ / মতলবে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে শতাধিক ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা গ্যারেজ
auto-bike-driving-licence
ফাইল ছবি

মতলবে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে শতাধিক ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা গ্যারেজ

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠেছে অটোরিক্সা ও অটোবাইকের গ্যারেজ। ফলে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। ঔইসব গ্যারেজ গুলোতে প্রতিদিন প্রায় সহস্্রাধিক অটোরিক্সা ও অটোবাইকের ব্যাটারি চার্জ দেওয়া হচ্ছে। এসব ব্যাটারীর চার্জ করতে প্রতিদিন অতিরিক্ত বিদ্যুতের প্রয়োজন হয়। এতে বেড়ে যাচ্ছে লোডশেডিং।

আবাসিক মিটার লাগিয়ে গ্যারেজ গুলোতে অবৈধ ও চোরাই ভাবে ব্যাটারি চার্জ দিচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। এসব ব্যাটারি চার্জ করতে কয়েক গুন বিদ্যুতের অপচয় হচ্ছে।

এতে লাভবান হচ্ছে গ্যারেজ মালিকসহ চোরাই ভাবে বিদ্যুৎ সংযোগকারী ও কিছু সংখ্যক বিদ্যুতের সিন্ডিকেট চক্র। যত্রতত্র ব্যাটারি চার্জের গ্যারেজ হওয়ায় এবং অতিরিক্ত বিদ্যুৎ ব্যবহারের কারনে প্রতিনিয়ত বিদ্যুতের ট্রান্সমিটার বিকল হয়ে যায়।

এতে উপজেলার হাজার হাজার গ্রাহকদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়। বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারনে ওইসব ব্যাটারী চার্জের গ্যারেজের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে।

স্থানীয় বিদ্যুৎ অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজসে প্রতিনিয়ত অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগের জাল বুনছে গ্যারেজ মালিকরা।

উপজেলায় গড়ে উঠা শতাধিত অবৈধ গ্যারেজের মধ্যে বেশিরভাগ গ্যারেজেই অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ রয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা যায় সড়কের পাশে শতাধিক গ্যারেজে ও বাসা-বাড়িতে আবাসিক বিদ্যুৎ মিটার দিয়ে বানিজ্যিক হিসেবে চোরাই লাইন ব্যবহার করছে। প্রতি রাতে এসব গ্যারেজে শ’ শ’ অটোরিক্সা ও অটোবাইকের ব্যাটারি চার্জ দেওয়া হয়।

প্রতিটি ব্যাটারি চার্জে দৈনিক ১৫০ থেকে ২০০ টাকা করে অটোরিক্সা ও অটোবাইক চালকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে গ্যারেজ মালিকরা।

মতলব বাজার স্ট্যান্ডের লাইনম্যান শেকান্তর জানায়, মতলব বাজারের খাস মহলে সামনে এবং রিক্সা স্ট্যান্ড থেকে দিঘলদী মাস্টার বাজার, বোয়ালিয়া হরিসভার মোড়, কাজির বাজার, উর্দ্দমদী এবং দগরপুর, পৈলপাড়া, ধনারপাড় এলাকায় তিন শতাধিক অটোরিক্সা (টমটম) ও ব্যাটারি চালিত রিক্সা যাতায়াত করে। এসব গাড়িগুলোর ব্যাটারি বিভিন্ন গ্যারেজে এবং কেউ কেউ নিজেদের বাসা বাড়িতে বিদ্যুতের মাধ্যমে চার্জ দিয়ে থাকে।

খোঁজ নিয়ে আরোও জানা যায় মুন্সীরহাট, বরদিয়া আড়ং বাজার এবং নারায়নপুর, নায়েরগাঁও, জোড়পুল, কাশিমপুরসহ বিভিন্ন হাট বাজারে সাড়ে সাত শতাধিক অটোরিক্সা ও অটোবাইক চলাচল করছে। এসকল গাড়ির কারনে প্রত্যেক এলাকায়ই ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। এসব এলাকার অটোরিক্সা ও অটোবাইকের ব্যাটারি ও স্থানীয় বিভিন্ন গ্যারেজ ও বাসা বাড়িতে বিদ্যুতের মাধ্যমে চার্জ দিচ্ছে।

যত্রতত্র গড়ে ওঠা অবৈধ গ্যারেজের কারণে সরকার লাখ লাখ টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বিশেষ করে পৌরসভার মতলব বাজার, কলেজ গেইট, ওয়াপদা, ঢাকিরগাঁও, নবকলস, দগরপুর, উর্দ্দমদী, কাজির বাজার, মাষ্টার বাজার, বোয়ালিয়া হরিসভার মোড়সহ বেশ কয়েকটি স্থানে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা গ্যারেজ গুলোতে ২৪ ঘন্টা ব্যাটারি চার্জ দিতে দেখা যায়।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির দিলীপ চৌধুরী জানান, ‘মিটার থেকে যখন চার্জ দেয় তখন সেটি বৈধ। যদি অবৈধ ভাবে বুকিং করে বা মিটার বাইপাস করে চার্জ দেয় তাহলে সেটি অবৈধ হবে।’

তিনি আরোও বলেন, ‘আবাসিক মিটার থেকে যদি কেউ ব্যাটারি চার্জ দেয় তাহলে মিটারে সেগুলো ধরা পরে। এগুলোর ব্যাপারে রিপোর্টে আছে এবং আমাদের লোকজনের নজরে আছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’

প্রতিবেদক- মাহফুজ মল্লিক
: আপডেট, বাংলাদেশ ১১:৩৩ পিএম, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭ সোমবার
ডিএইচ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাতে উপদেষ্টাদের নিয়ে বৈঠক ডেকেছেন খালেদা

বিএনপি ...