Home / জাতীয় / আজ বিশ্ব মা দিবস

আজ বিশ্ব মা দিবস

‘মা কথাটি ছোট্ট অতি কিন্তু জেনো ভাই, মায়ের চেয়ে নাম যে মধুর ত্রিভুবনে নাই।’ মাত্র একটি অক্ষরের শব্দ ‘মা’।

কিন্তু পৃথিবীর সবচেয়ে মধুর শব্দ। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শব্দ। অর্থে অনবদ্য। শ্রুতিতেও মধুময়। মা ডাক শুনলে চোখের সামনে ভেসে ওঠে মায়াবী সুন্দর এক মুখ।

যে মুখে লেগে থাকে স্নেহ, মমতা আর ভালোবাসা। মা শব্দের মধ্যেই পৃথিবীর সব ভালোবাসা, আবেগের সম্মিলন। সন্তানের কাছে সবচেয়ে আপন, সবচেয়ে প্রিয় তার মা। পৃথিবীর সব মানুষের মনে রয়েছে মায়ের প্রতি অপরিসীম শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা।

কেননা সম্পর্কের বেড়াজাল ছিন্ন করে সবাই দূরে সরে যেতে পারে। চলে যেতে পারে প্রেমাবেগের বন্ধনের প্রিয়সীও। কিন্তু মা’র স্নেহ-ভালোবাসার বন্ধন কখনই ছিন্ন হওয়ার নয়। মা এমন একজন, যিনি সারাজীবন সন্তানকে বুকের মধ্যে আগলে রাখেন। আজ আমাদের মা দিবস। মা দিবসের মূল উদ্দেশ্য, মাকে যথাযথ সম্মান দেয়া। যে মা জন্ম দিয়েছেন, লালন-পালন করেছেন, তাকে শ্রদ্ধা দেখানোর জন্য দিনটি পালন করা হয়।

দিনটি উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বিভিন্ন সংগঠন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরই মধ্যে মাকে ভালোবাসা জানিয়েছেন বহু মানুষ। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভিন্ন ভিন্ন তারিখে দিনটি পালন করা হয়। নরওয়েতে, মার্চের চতুর্থ রোববার আয়ারল্যান্ড, নাইজেরিয়া ও যুক্তরাজ্যে মা দিবস পালিত হয় ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় রোববার।

তবে বাংলাদেশে মা দিবস নির্ধারণ করা হয়েছে মে মাসের দ্বিতীয় রোববার। বিশ্বের অনেক দেশে কেক কেটে মা দিবস উদযাপন করা হয়। তবে মা দিবসের প্রবক্তা আনা জার্ভিস দিবসটির বাণিজ্যিকীকরণের বিরোধিতা করে বলেছিলেন, মাকে কার্ড দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর অর্থ হলো, তাকে দুই কলম লেখার সময় হয় না।

চকলেট উপহার দেয়ার অর্থ হলো, তা নিজেই খেয়ে ফেলা। আনা জার্ভিস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোর ও ওহাইওর মাঝামাঝি ওয়েবস্টার জংশন এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। তার মা অ্যান মেরি রিভস জার্ভিস সারা জীবন ব্যয় করেন অনাথ-আতুরের সেবায়।

মেরি ১৯০৫ সালে মারা যান। লোকচক্ষুর অগোচরে কাজ করা মেরিকে সম্মান দিতে চাইলেন মেয়ে আনা জার্ভিস। অ্যান মেরি রিভস জার্ভিসের মতো দেশজুড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা সব মাকে স্বীকৃতি দিতে আনা জার্ভিস প্রচার শুরু করেন। সাত বছরের চেষ্টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রীয় স্ব্বীকৃতি পায় মা দিবস।

রত্নগর্ভা মা অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন ৫০ জন

রত্নগর্ভা মা অ্যাওয়ার্ড ২০১৭-এর জন্য মনোনীত হয়েছেন ৫০ জন মা। মা দিবস উপলক্ষে প্রতিবছর আজাদ প্রডাক্টস রত্নগর্ভাদের এই সম্মাননা দিয়ে থাকে। আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী সেন্টারে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে রত্নগর্ভাদের হাতে এই অ্যাওয়ার্ড তুলে দেওয়া হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ। বিশেষ অতিথি থাকবেন মোহাম্মাদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা হক।

৫০ জনের মধ্যে সাধারণ ক্যাটাগরিতে ২৫ জন এবং বিশেষ ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন ২৫ জন রত্নগর্ভা।

গতকাল শনিবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে আজাদ সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে জানানো হয়। আজাদ প্রডাক্টসের কর্ণধার ও রত্নগর্ভা মা অ্যাওয়ার্ডের উদ্যোক্তা আবুল কালাম আজাদ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন।

তিনি বলেন, ‘২০০৩ সালে এই অ্যাওয়ার্ড শুরু করা হয়েছে আজাদ প্রডাক্টসের উদ্যোগে। একটি সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই এটি শুরু করি। এই অ্যাওয়ার্ড প্রদানের বিষয়টি বেশ সাড়া জাগিয়েছে। একজন মা পরিবারের প্রথম শিক্ষক। সুশিক্ষিত সন্তান গড়ার ক্ষেত্রে একজন মা-ই হচ্ছেন নিপুণ কারিগর। একজন ভালো সন্তান তৈরির নেপথ্যে চাই আদর্শ তথা রত্নগর্ভা মা। আমরা সেই রত্নগর্ভা মায়েদের সম্মাননা জানানোর জন্যই প্রতিবছর রত্নগর্ভা মায়েদের সম্মান জানাই।’

Leave a Reply