Home / আবহাওয়া / চাঁদপুরসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ফের কালবৈশাখীর আশঙ্কা
rain weather

চাঁদপুরসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ফের কালবৈশাখীর আশঙ্কা

আজ রাতে ফের চাঁদপুরসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে কালবৈশাখী বয়ে যেতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

রোববার(৩১ মার্চ) মধ্য চৈত্রের সন্ধ্যায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে ৭৪ কিলোমিটার বেগে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। ঝড়ো হাওয়ায় ঢাকায় গাছ উপড়ে হতাহতের ঘটনাও ঘটেছে। এর পরদিনই আবারও কালবৈশাখীর আশঙ্কার কথা জানাল আবহাওয়া অধিদফতর।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সোমবার(১ এপ্রিল) রাত ১২টা থেকে পরবর্তী ৯ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ী দমকা বা ঝড়ো হাওয়া ও শিলাবৃষ্টিসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বলেন, ‘কালবৈশাখীর যে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে তা ঢাকা ছাড়াও রাজশাহী, যশোর, কুষ্টিয়া, মাদারীপুর, টাঙ্গাইল, চাঁদপুর, কুমিল্লাসহ এসব এলাকার ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে। এই সময়ে এ ধরনের কালবৈশাখী হয়ে থাকে। এটা স্বাভাবিক।’

কালবৈশাখীর কারণ ব্যাখ্যা করে আরিফ হোসেন বলেন,‘পশ্চিমবঙ্গ ও কাছাকাছি এলাকায় তাপীয় লঘুচাপ সৃষ্টি হয়। এই লঘুচাপগুলো পশ্চিমবঙ্গ থেকে বাংলাদেশের দিকে অগ্রসর হয়। বিশেষ করে রাজশাহী, রংপুর, অনেক সময় যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চল দিয়ে এই লঘুচাপ প্রবেশ করে। এটা ধীরে ধীরে অগ্রসর হয়ে দেশের মধ্যাঞ্চল পেরিয়ে পূর্বাঞ্চলে গিয়ে শেষ হয়। সিলেট, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এসব অঞ্চল দিয়ে এই লঘুচাপ বের হয়ে যায়।’

তিনি বলেন, ‘এ সময় সমুদ্র থেকে প্রচুর পরিমাণ আর্দ্রতা স্থলভাগে প্রবেশ করে। তাপীয় লঘুচাপ ও আর্দ্রতা মিলে বজ্রমেঘ তৈরি হয় আর বজ্রমেঘ থেকে তৈরি হয় বজ্রঝড়, যাকে আমরা কালবৈশাখী বলি।’

কালবৈশাখীর এ প্রবণতা মঙ্গলবারও থাকবে জানিয়ে আবহাওয়াবিদ আরিফ বলেন, ৩ ও ৪ এপ্রিল একটু কম থাকবে। এরপর ৫ এপ্রিল থেকে আবার তিন-চারদিন ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। সাধারণত শেষ বিকেলে বা সন্ধ্যার পর বা রাতে কালবৈশাখীর প্রবণতাটা বেশি দেখা যাবে।

আবহাওয়া ডেস্ক
১ এপ্রিল,২০১৯