Home / আরো / ইসলাম / ইমাম জর্দা খেলে তার পেছনে নামাজ হবে?

ইমাম জর্দা খেলে তার পেছনে নামাজ হবে?

পানের সাথে প্রায় অধিকাংশ মানুষই জর্দা খান। আর জর্দা সম্পর্কে প্রচলিত আছে এটি নেশা জাতীয় দ্রব্য যা খাওয়া হারাম। আবার কেউ বলে মাকরূহ, কেউ বলে মুবাহ। অনেক এলাকায় মনে করা হয় যে ইমাম পানের সাথে জর্দা খায় তার পিছনে ইকতিদা করা যাবে না। বিষয়টি নিয়ে অনেকেই দ্বীধা দ্বন্দ্বে থাকেন।

ইমাম সাহেব জর্দা খেলে তার পেছনে নামাজ হবে যাবে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, জর্দা খাওয়া হারামের বিষয়টি বলা যেতে পারে, প্রায় এ যুগের ওলামায়েকেরামের ঐকমত্যে সাব্যস্ত হয়েছে। কিছু সংখ্যক আলেম দ্বিমত প্রকাশ করেছেন, তবে তাদের সংখ্যা খুবই কম। আপনি যদি জর্দার পরিমাণ বৃদ্ধি করেন, মানে এটা যদি এক কেজি আধা কেজি বা এক পোয়া খান, তাহলে নিশ্চিত এর মধ্যে মাদকতা আসবে। এ কারণে শুধু মাদকতা আসবে তা নয়, এটা মারাত্মক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এই জন্য এই কাজটি হারাম কোন সন্দেহ নেই।

কিন্তু এই কাজটি যদি কোন ইমাম করেন, তবে তাঁর পিছনে সালাত আদায় করা যাবে না, এ বক্তব্যটি সঠিক নয়। তিনি গুনাগার হবেন হারাম কাজ করার কারণে। তাঁর পিছনে সালাত আদায় করা জায়েজ রয়েছে। তবে উত্তম হচ্ছে ইমামকে এ বিষয়ে নছিহত করা, যাতে তিনি এ ধরনের হারাম কাজে লিপ্ত না হন। আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন, নিজেরও ক্ষতি করা যাবে না, অন্যেরও কোন ক্ষতি করা যাবে না। তাই এ ক্ষেত্রে তাঁকে নছিহত করা যেতে পারে।

যদি ভাল কোন ইমাম পাওয়া না যায়, তাহলে তাঁর পিছনে সালাত আদায় করতে কোন নিষেধাজ্ঞা নেই, সালাত হয়ে যাবে। (বিডি২৪লাইভ)

বার্তা কক্ষ
২৬ এপ্রিল ২০১৯