Home / চাঁদপুর / দেশে লুটপাটের রাজত্ব চলছে, রাস্তায় না নামলে আ’লীগকে হঠা‌নো যা‌বে না : চাঁদপুরে দুদু
Dudu-chandur

দেশে লুটপাটের রাজত্ব চলছে, রাস্তায় না নামলে আ’লীগকে হঠা‌নো যা‌বে না : চাঁদপুরে দুদু

চাঁদপুর জেলা কৃষক দলের প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেলে শহরের মনিরা ভবনে অনুষ্ঠিত প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বিএনপি নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়াম্যান ও কৃষক দল কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক প্রবীণ নেতা শামছুজ্জামান দুদু।

প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক। উদ্বোধকের বক্তব্য রাখেন, কৃষক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাকির তুহিন। বিশেষ অতিথির কক্তব্য রাখেন, কুমিল্লা বিভাগীয় কৃষক দলের আহবায়ক তকদির হোসেনন, কেন্দ্রীয় কমিটির যগ্ম আহ্বায়ক একেএম মোয়াজ্জেম হোসেন, জামাল উদ্দিন খান মিলন, সদস্য নাছির উদ্দিন হাজারী, কামরুজ্জামান সেলিম, ফেরদৌস পাটওয়ারী ও জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়কগণ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামসুজ্জামান দুদু বলেন, কৃষকের কাছে সন্তানের পরেই আপন হলো তার ফসল। আজকে কৃষক তার সেই প্রিয় ফসলে আগুণ দিচ্ছে, সঠিক মূল্য না পাওয়ার কারণে। অথচ কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনলে এটি হতো না। কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনেছে শহীদ জিয়াউর রহমান এবং খালেদা জিয়া। যার ফলে বিএনপিরর আমলেই চাল রপ্তানি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমাতায় আসার আগে বলেছিলো ১০টাকায় চাল খাওয়াবে। এর আগে শেখ মজিব বলেছেন আট আনা সের চাল খাওয়াবে কিন্তু মানুষ তখন ব্যাঙও খেতে পায়নি। মানুষ কাপড়ও পরতে পারেনি। দেশে দুর্ভিক্ষ ছিলো। ৪০ হাজার মানুষকে হত্যাকরা হয়েছে। সেই গুম, দুর্ভিক্ষ বন্ধ হয়েছে জিয়াউর রহমানের আমলে। কৃষক ধানের মূল্য পেয়েছ। মানুষ এখন ১০টাকার চাল ৫০ টাকায় কিনে খাচ্ছে।

বিএনপির এই প্রবীণ নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ কথায় কথায় মিথ্যা বলে। এতো মিথ্যা কথা পৃথিবীর কোনো রাজনীতিক দল বা নেতারা বলেনাই। তারা একটি জালিম দল। সাহস থাকলে আসুক, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধিনে একটা নির্বাচন করি। তখন কয়টা সিট পায় দেখা যাবে।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের জন্যে স্বাধীনতা সংগ্রাম হয়েছে। অথচ বঙ্গবন্ধু সব দল বন্ধ করে দিয়েছে। সেটি খুলে দিয়েছে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। শেখ মুজিবের ছায়া ছিলো খন্দকর মোস্তাক। এই মোস্তাক শেখ মুজিবকে হত্যা করেছে। অথচ তাঁর হত্যার বিষয়ে জিয়াউর রহমানের নাম বলেন। জিয়াউর রহমানের মতো মানুষ জন্মেছিলো বলেই আপনারা দেশে ফিরতে পেরেছেন।

৯১ নির্বাচনে সাদেক হোসেন খোকার সাথে নির্বাচনে হেরে গেছেন শেখ হাসিনা। কয়েক বছর আগে ৯৬ হাজার কোটি টাকা লুট করেছে। এবার আবার ২৭হাজার কোটি টাকা লুট হয়ে গেলো।আওয়ামী লীগ এই দেশে লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করেছে।

তিনি আরো বলেন, দেশের স্বাধীনতার ঘোষণা করেছিলেন শহীদ জিয়াউর রহমান, স্বৈরাচারী এরশাদের পতন ঘটিয়েছিলেন আপোষহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। আমরা যদি রাস্তায় গিয়ে না দাঁড়াতে পারি তা হলে আওয়ামী লীগকে হঠানো যাবে না, বেগম জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না ও তারেক রহমানকে দেশে ফেরানো যাবে না।

জেলা কৃষকদলের সভাপতি এনায়েত উল্যা খোকনের সভাপতিত্বে সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেন খান, সাধারন সম্পাদক হযরত আলী, জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মানিকুর রহমান, সাধারন সম্পাদক নুরুল আমিন খান আকাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল গাজী বাহার, মতলব উত্তর উপজেলার সভাপতি হানিফ পাটওয়ারী, কচুয়া উপজেলার সভাপতি ডাঃ আব্দুল লতিফ, সদর উপজেলার সভাপতি আব্দুল মজিদ মৃধা, ফরিদগঞ্জ উপজেলার সভাপতি মাওলানা ইদ্রীস, হাইমচর উপজেলার সভাপতি আবু তাহের, মতলব উত্তর পৌর কৃষক দলের সভাপতি আনিছুর রহমান, হাজীগঞ্জ পৌর সভাপতি আবুল খায়ের চৌধুরী, শাহরাস্তি পৌর কমিটির সভাপদি হেদায়েত উল্যা মিন্টু, চাঁদপুর পৌর সভাপতি আমিনুল ইসলাম, মতলব পৌর সভাপতি মাহবুব আলম, কচুয়া পৌর সভাপতি শাহ আলম মিয়া প্রমুখ।

প্র‌তি‌নি‌ধি স‌ম্মেল‌নে এনা‌য়েত উল্যা খোক‌নক সভাপ‌তি ও আবুল কালাম আজা‌দকে সাধারণ সম্পাদক ক‌রে জেলা কৃষকদ‌লের ক‌মি‌টি ঘোষণা ক‌রেন প্রধান অ‌তি‌থি।অনুষ্ঠা‌নের শুরু‌তে দলীয় সংগীত প‌রি‌বেশন ক‌রেন জেলা জাসা‌সের সভাপ‌তি গোলাম মোস্তফা রতন।

প্রতিবেদক : আশিক বিন রহিম, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮ :০০ পিএম