Home / আবহাওয়া / পহেলা বৈশাখের শেষ বিকেলে চাঁদপুরে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা!
rain weather

পহেলা বৈশাখের শেষ বিকেলে চাঁদপুরে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা!

বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নতুন বছর উদযাপনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন। চাঁদপুর জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং ব্যাক্তিগত পর্যায়েও অনেক পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে।

এখন আবহাওয়া কেমন থাকবে সেটাই বড় প্রশ্ন। আবহাওয়া অফিসের সূত্রমতে, নববর্ষের দিন সকালে আকাশে মেঘের আনাগোনা থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা কেটে যাবে, অনুভূত হবে ভ্যাপসা গরম। আর বিকেলের দিকে চাঁদপুরসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি।

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুসকে বলেন, ‘নববর্ষের দিন (১৪ এপ্রিল, রোববার) দেশের বেশিরভাগ জায়গায় প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। দুপুরে পর অনেক জায়গায় বিশেষ করে দেশের পশ্চিম অংশে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। ’

‘বৃষ্টি না হলেও বজ্রপাত হলো, একটু জোরালো বাতাস হলো -বিকেলের দিকে এমনও হতে পারে নববর্ষের দিন’ বলেন এ আবহাওয়াবিদ।

তিনি আরও বলেন, ‘রোববার (১৪ এপ্রিল) সকালের দিকে একটু মেঘলা আকাশ থাকতে পারে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে সেটা কেটেও যাবে। তাই বিকেল পর্যন্ত ভ্যাপসা গরম থাকতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘গত দু’দিন থেকে যেহেতু ঝড়-বৃষ্টি কম হওয়ার একটা ট্রেন্ড শুরু হয়ে গেছে, বলা যেতে পারে আগামী সপ্তাহ এভাবেই থাকতে পারে। বিক্ষিপ্তভাবে দু’এক জায়গায় ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। তবে আপাতত বড় ধরনের ঝড়-বৃষ্টির আশঙ্কা কম।’

ঢাকায় তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস কম আছে। এছাড়া বরিশাল ও চট্টগ্রাম ছাড়া দেশের অন্যান্য বিভাগেও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম রয়েছে বলেও জানান আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে টাঙ্গাইলে। একই সময়ে চাঁদপুরে ৪, ময়মনসিংহে ৩ ও নিকলীতে ২ মিলিমিটার ও ঢাকায় সামান্য বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

চাঁদপুর আবহাওয়া বিভাগের পর্যবেক্ষক শামছুল হক জানান, শনিবার চাঁদপুরে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ২৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি। সকালে বাতাসের আদ্রতা ছিলো ৮৩ শতাংশ বিকেলে ছিলো ৬২ শতাংশ।

এছাড়া সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।

এ সময়ে সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে বলেও পূর্বাভাসে উল্লেখ করা হয়েছে।

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৩ এপ্রিল, ২০১৯