Home / চাঁদপুর / চাঁদপুরের যাত্রী ছাউনীগুলো দখল করে রমরমা চাঁদাবাজী

চাঁদপুরের যাত্রী ছাউনীগুলো দখল করে রমরমা চাঁদাবাজী

চাঁদপুর জেলার প্রায় সব ক’টি যাত্রী ছাউনী দখল করে চলছে হরেক রকমের চাঁদবাজী। বছরের পর বছর ধরে ছাউনীগুলো দোকানদারকে ভাড়া দিয়ে একশ্রেণির প্রভাবশালীরা মাসিক ভাড়ার নামে চাঁদা আদায় করছে।

ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন যানবহনের অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা। সম্প্রতি ঈদছুটি শেষে কর্মস্থলে মানুষগুলো চরম ভোগান্তিতে পড়ছেন। আর এ জনদুর্ভোগ দেখার জন্য যেসকল অধিদপ্তর জড়িত তারা কখনো সরেজমিন তদন্তে আসতে দেখা যায়নি বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

বিভিন্ন যাত্রী ছাউনী গুলোতে সরেজিমিনে ঘুরে দেখা গেছে,কেউ কনফেকশনারীর দোকান খুলে বসেছেন, কেউবা চটপটি পুরি সিঙ্গারার দোকান। আর এসব দোকানীদের কারণে যাত্রী ছাউনী থাকার পরও প্রখর রোদ্রের মধ্যে যাত্রীরা যানবাহনের জন্য অপেক্ষা করতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাড়ীয়ে থাকতে দেখা যায়।

বিশেষ করে হাজীগঞ্জ পশ্চিম বাজার বিশ্ব রোডের দক্ষিণ পাশের যাত্রী ছাউনী গত কয়েক বছর ধরে দখল করে রেখেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। সেই সাথে বলাখাল মধ্য বাজারের যাত্রী ছাউনি কতিপয় এক নেতা মুদি দোকান দিয়ে বসেছে।

চাঁদপুর বাসস্ট্যান্ড, বাবুরহাট, কৈয়ারপোল, বাকিলা, মহামায়াসহ জেলার অন্তগত ৩২ টি যাত্রী যাউনী বে-দখলে রয়েছে।

যাত্রী ছাউনী দখল করে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা ভাসমান ব্যবসায়ীদের অদৃশ্য কারণে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না জেলা প্রশাসন বা জেলা পরিষদ।

যাত্রী ছাউনীতে দোকানপাট খুলে বসে থাকা অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে অচিরেই জেলা প্রশাসন ব্যবস্থা নিবেন এটাই ভুক্তভোগী যাত্রীদের প্রত্যাশা।

এ বিষয়ে চাঁদপুর সড়ক বিভাগের মহা-পরিচালক সব্রত দত্ত চাঁদপুর টাইমসকে বলেন, ‘যাত্রী ছাউনী রক্ষানাবেক্ষণের দায়িত্ব মূলত জেলা পরিষদ কিংবা পৌরসভার। আমরা মূলত কোন অবৈধ দোকান পাঠ সড়কের পাশে রাখতে চাইনা। রাজনৈতিক নানা কারনে বছরের পর বছর দখল করে রাখলেও তত্তাবধায়ক সরকারের সময় আসলে আমরা এগুলো পুরোপুরি দখল মুক্ত করতে পারি।’

প্রতিবেদক- জহিরুল ইসলাম জয়
: আপডেট, বাংলাদেশ ৭: ৪০ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রোববার
ডিএইচ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

Chandpur General Hospital

হাজীগঞ্জে খাবার খেয়ে একই পরিবারের ৪ জন অচেতন

চাঁদপুরের ...