Home / বিশেষ সংবাদ / মায়ের পথ ধরে গানের ভুবনে ন্যান্সি কন্যা রোদেলা -ভিডিও
Nancy-rodela

মায়ের পথ ধরে গানের ভুবনে ন্যান্সি কন্যা রোদেলা -ভিডিও

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। গানে গানে তিনি জয় করেছেন বাংলা গানের শ্রোতাদের মন। এবার সে পথ ধরে গানের ভুবনে হাজির ন্যান্সি কন্যা মার্জিয়া বুশরা রোদেলা।

মাত্র ১১ বছর বয়সেই গায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ হচ্ছে তার। প্রকাশ হতে যাচ্ছে ন্যান্সির মেয়ে মার্জিয়া বুশরা রোদেলার গাওয়া গান।

মায়ের উৎসাহ নিয়ে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘প্রজাপতি প্রজাপতি’ গানটি কণ্ঠে নিয়েছেন রোদেলা। এ গানে সরাসরি না গাইলেও হামিংয়ে পাওয়া যাবে ন্যান্সিকে। গানটির সংগীতায়োজন করেছেন মীর মাসুম।

সম্প্রতি মগবাজারের একটি স্টুডিওতে এটির রেকর্ডিং হয়েছে বলে জানান ন্যান্সি। তিনি বলেন, ‘এটা অন্যরকম আবেগের একটা অনুভূতি। মেয়েকে স্টুডিওতে নিয়ে যাবার পর ঘরে আমার প্রথম গানের রেকর্ডিংয়ের কথা মনে পড়ে গেল। ভেবেছিলাম, সে হয়তো নার্ভাস হবে। গাইতে গিয়ে থেমে যাবে। কিন্তু সে একটানে পুরোটা গান গেয়ে ফেলল! বেশ অবাকই হয়েছি।’

ন্যান্সি জানান, রোদেলা নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলা হয়েছে। সেখানেই চলতি সপ্তাহে গানটি অবমুক্ত করা হবে।

ন্যান্সি আরও বলেন, ‘রোদেলার গাওয়া গানটি প্রকাশের পেছনে আরেকটি কারণ হলো শিশুতোষ গানগুলোকে আবার তুলে আনা। আগের মতো শিশুতোষ গান আমাদের এখানে আর হচ্ছে না। টিভি, রেডিও, ইউটিউব- কোথাও না। আরও অবাকের বিষয়, শিশুদের এই গানগুলোর বেশিরভাগই দেখি বড়দের কণ্ঠে ইউটিউবে ঘুরে বেড়াচ্ছে!

অথচ আমাদের বাচ্চারা ব্যস্ত থাকে ‘টুইংকেল টুইংকেল লিটল স্টার’ কিংবা ‘জনি জনি ইয়েস পাপা’ নিয়ে! আমার বাচ্চারাও এসব শুনে বড় হচ্ছে। তো এই অভাববোধ থেকেই আমি মার্জিয়া বুশরা রোদেলার কণ্ঠে শিশুতোষ বাংলা গানগুলো নিয়মিত তুলতে চাই। আমি চাই আমাদের বাচ্চারা এই গানগুলো শুনে বেড়ে উঠুক। এই গানগুলো অন্য বাচ্চারাও গাইতে শিখুক।’

রাজধানীর একটি স্টুডিওতে কাজী নজরুল ইসলামের ‘প্রজাপ্রতি প্রজাপতি’ গানটি নতুন রিমেকে রেকডিং করেছে মার্জিয়া বুশরা রোদেলা। গানটিতে হামিং দিয়েছেন ন্যান্সি নিজেই।

রোদেলার সঙ্গে অনেকক্ষণ কথা বলার পর প্রথমেই তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে জীবনের প্রথম গান গাওয়া নিয়ে নিজের অনুভূতি।

জবাবে রোদেলা বলেন, এটা আমার জীবনের প্রথম রেকডিং, অনেক ভয়ে ছিলাম। কি হয় না হয়। মাসুম আঙ্কেল (সঙ্গীত পরিচালক) আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছেন, সাহস যুগিয়েছেন। আপনারা সবাই আমার গানটি শুনবেন, আমাকে উৎসাহিত করবেন। আশা করি গানটি সবার ভাল লাগবে। আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন মায়ের মতো বড় শিল্পী হতে পারি।

এরপর রোদেলার গান চর্চা নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি।

রোদেলার কিভাবে গানে আগমন এমন প্রশ্নের জবাবে ন্যান্সি বলেন, সে যে গান করে সেটা আমি কখনো টের পায়নি। তবে হঠাৎ করে দেখি, একা একা আমার গান বা অন্য কারো গান যে গানগুলো তার ভাল লাগে সেই গানগুলো রেকর্ড করে রেখে দেয়। তো কাকতালীয়ভাবে একদিন এই রেকর্ড গুলো আমার হাতে পড়ে। দেখলাম সেই ফোনে তার রেকর্ড করা অনেক গান। সে থেকেই বুঝলাম আসলে গানের প্রতি তার একটা আগ্রহ আছে। তখন আমি তার গানের প্রতি একটু মনযোগ দেই। এরপর গান নিয়ে তার সঙ্গে বসা শুরু করলাম।

ন্যান্সি বলেন, শিশুদের উদ্দেশ্য করে নজরুলের বিখ্যাত গান ‘প্রজাপ্রতি প্রজাপতি’ গানটি আবার নতুন রিমেকে করেছে রোদেলা। শিশুদের উপযোগি একটা গান। একটি শিশুর গান যখন আরেকটা শিশুর কণ্ঠে শুনবে তখন কিন্তু সবার ভাল লাগবে। তো সে জন্যই মূলত গানটি করা।

ন্যান্সি বলেন, রোদেলার গান বা নাচ নিয়ে আমি তাকে কখনো প্রেশার দেয়নি যেটা আমার বাবা-মা আমাকে দিয়েছে। আমাকে শিখতেই হবে, করতেই হবে। রেওয়াজ করো। তবে একটা বিষয় সত্যি যে ও যদি নিজ থেকেই গান করে তাহলে আমার ভাল লাগবে।

রোদেলার কণ্ঠের মূল্যায়ন করে ন্যান্সি বলেন, এটি মূল্যায়ন করবে দর্শক। তবে আমি মনে করি রোদেলার কণ্ঠ খুব ভাল। তার মধ্যে আমার একটা ছোঁয়া আছে। রোদেলার এখন যে বয়স এই বয়সের যে টোনটা তা অল্প কিছুদিনের মধ্যেই পরিবর্তন হবে। এই শিশুসুলভ কণ্ঠটি আর থাকবে না।

তিনি বলেন, এই সময়টা মনে করি তার জন্য এটা পারফেক্ট টাইম। এই সময়ের মধ্যে ৮-১০টা গান তার কণ্ঠে রেকর্ড করব। যেন রোদেলার গানগুলো থেকে অন্য শিশুরা শিখতে পারে, শুনতে পারে।

গানটি রোদেলার নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকেই প্রকাশিত হয়েছে- তাঁর চ্যানেল থেকে ভিডিওটি দেখুন-

বার্তা কক্ষ
১৩ মার্চ, ২০১৯

ইন্টারনেট কানেকশন নেই