সংবাদটি কপি করা উচিত হবে না। অনুমতি পেতে মেইল করতে পারেন news@chandpurtimes.com

Home / শীর্ষ সংবাদ / ১৬-এর স্থলে দুই : হুমকিতে হাইমচরের স্বাস্থ্যসেবা
health-complex

১৬-এর স্থলে দুই : হুমকিতে হাইমচরের স্বাস্থ্যসেবা

জনগনের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে সরকারের নানামুখী প্রচারণা থাকলেও চিকিৎসক সংকটে হুমকিতে চাঁদপুরের চরাঞ্চল খ্যাত হাইমচর উপজেলার স্বাস্থ্য সেবা। এ উপজেলার একমাত্র সরকারি ক্লিনিক হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৬ জন চিকিৎসকের স্থলে কাজ করছেন মাত্র ২জন চিকিৎসক।

সোমবার (১ জুলাই) হাইমচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায় ১ জন চিকিৎসক রোগীদের সেবা দিচ্ছেন। তার আশেপাশে প্রায় শতাধিক রোগীদের কেউ দাঁড়িয়ে এবং বসে অপেক্ষা করছেন।

উপস্থিত কর্মরত চিকিৎসক এ স্বাস্থ্য কমপ্লেকের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মামুন রায়হান। তিনি জানান, হাইমচর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ ৬টি ইউনিয়নের সাবসেন্টারে মোট ১৬জন চিকিৎসক থাকার কথা থাকলেও বর্তমানে ২জন চিকিৎসক দিয়েই চলছে হাইমচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবা।

এরইমধ্যে বেশ কয়েকজন চিকিৎসক নিয়োগ পেলেও অল্প কয়েকদিন কমপ্লেক্সে থেকে আবার তদবীর করে অন্যত্র চলে যায়। সর্বশেষ আজও (১ জুলাই) একজন চিকিৎসক ডেপুটেশনে ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চলে গেছেন। এভাবে চলে যেতে যেতে মাত্র ২জনে এসে দাঁড়িয়েছে।’

এ চিকিৎসক অনেকটা আক্ষেপ করে বলেন, ‘আমরা দু’জন স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। আমরাও তো মানুষ, আমাদেরও বিশ্রামের প্রয়োজন রয়েছে। আমরা তা পাচ্ছি না। এছাড়া ২জন চিকিৎসক ডা. প্রণতি দাশ ও ডা. দিপনদে প্রায় ৫ বছর ধরে কর্মস্থলে ছুটি ছাড়াই অনুপস্থিত।

সরেজমিনে চাঁদপুর টাইমস প্রতিবেদকের সাথে কথা কথা হয় উপজেলার কমলাপুরের রোগী আমেনা বেগমের সাথে।

তিনি সহ আরো কয়েকজন রোগী জানান, ‘আমরা দীর্ঘক্ষণ বসে আছি। একজন ডাক্তার চিকিৎসা দিচ্ছেন, আমরা সিরিয়াল পাচ্ছি না। আরো ডাক্তার থাকলে আমরা তারাতারি চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি যেতে পারতাম।’

কথা হয় ইউএইচএফপিও ডা. মো. বেলায়েত হোসেনের সাথে, ‘তিনি বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সংকট রয়েছে। আমি চিকিৎসক পাওয়ার ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে বার বার যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছি।’

চিকিৎসক সংকটের ব্যাপারে হাইমচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী বলেন, ‘আমি জেনেছি হাইমচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সংকট চলছে। দ্রুত চিকিৎসক পাওয়ার ব্যাপারে আমি আমাদের সংসদ সদস্য মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনির সাথে কথ বলবো।’

চিকিৎসক সংকটের এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকলে হাইমচরের জনগনের স্বাস্থ্য সেবা চরম হুমকিতে পড়বে বলে মনে করছেন স্থানীয় সচেতন মহল।

প্রতিবেদক- বিএম ইসমাইল
২ জুলাই ২০১৯