Home / উপজেলা সংবাদ / ফরিদগঞ্জ / ফরিদগঞ্জের সেই মা ডিএনএ দিয়ে খুঁজে পেলো তাঁর ছেলেকে
Rohan

ফরিদগঞ্জের সেই মা ডিএনএ দিয়ে খুঁজে পেলো তাঁর ছেলেকে

বোনের বিয়ের কেনাকাটা করতে গিয়ে লাশ হওয়া নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তানজিল হাসান রোহানের ফিরে পেয়েছেন তাঁর মা। এর আগে আগুনে পুড়ে ছেলের চেহারা বিকৃত হওয়ার লাশ সনাক্ত করতে পারেনি পরিবার।
এ জন্য ডিএনএ নমুনা দিতে হয় রোহানের মাকে।

সেসময় সাংবাদিকদের সামনে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার রোহানের মা কাকুতি মিনতে করে বলেছিলেন ‘যেরকম হোক… কালি হোক, একটু যদি মাংস থাকে, মাংসের ফোঁটাও থাকে। আমার বাবারে এনে দেন। আমি কোলে নিমু। দরকার হয় আমি ছালি (ছাই) ধরমু, এমনে গায়ে মাখুম।’

এবার সেই মা’র ডিএনএ দিয়ে তার রোহানকে খোঁজে পেলো। যা চাঁদপুর টাইমসকে নিশ্চিত করেছে রোহানের চাচা লোকমান খান।

রোহানের চাচা চাঁদপুর টাইমসকে বলেন,‘আমার ভাতিজার লাশ ডিএনএ দ্বারা সনাক্ত করে বুধবার (৭ মার্চ) রাত ৯টায় মেডিকেলের লাশ ঘর হতে বুঝিয়ে দিয়েছে থানা পুলিশ। এরপর রোহানের লাশ ফরিদগঞ্জে নিয়ে আসা হয়। আজ(৭ মার্চ) সকাল ৮টায় তার নিজ বাড়িতে জানাজা ও দাফন সম্পন্ন হয়।’

রোহানের বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার সেকদি খান বাড়ি (খাসের বাড়ি)। তাাঁর জ্যাঠাতো ভাই ফয়সাল খান চাঁদপুর টাইমসকে জানান, ‘ছোটবেলা থেকেই রোহান তার পরিবারের সাথে ঢাকায় থাকতেন। ঘটনার দিন তিন বাইকে ছয় বন্ধু বিয়ের বাজার করতে গিয়ে অগ্নিকাণ্ডের শিকার হন। এরমধ্যে দু’বন্ধু বেঁচে গেলেও রোহানসহ বাকিরা অগ্নিদগ্ধ হয়।’

অগ্নিকাণ্ডে জীবন্ত দগ্ধদের মধ্যে ১৯ জনের মৃতদেহ চেনা সম্ভব না হওয়ায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) তাদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করে।

লাশের দাবি নিয়ে আসা স্বজনদের ডিএনএ-এর সঙ্গে মিলিয়ে দেখার পর এ পর্যন্ত ১১ জনের পরিচয় নিশ্চিত করতে পেরেছে সিআইডি।

সেই ১১ জনের মধ্যে আটজনের মৃতদেহ বুধবার পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বাকি তিনজনের মৃতদেহ বৃহস্পতিবার হস্তান্তর করা হবে বলে চকবাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুরাদুল ইসলাম জানান।

১১ জনের মধ্যে,তানজিন হাসান রোহান (২১) ছিলেন নর্থ সাউথ ইনভার্সিটির বিবিএ দ্বিতীয় সেমিস্টার শিক্ষার্থী লাশ সনাক্ত করা যায়।

আরও পড়ুন…

ফরিদগঞ্জের রোহানের ছবি হাতে ডিএনএ নমুনা দিতে ঢামেকে মা-ভিডিও

চাঁদপুরের সেই মা এখনো রোহানের লাশ পাননি – ভিডিও

চাঁদপুর টাইমস রিপোট
৭ মার্চ,২০১৯