Home / বিনোদন / সালমান-ঐশ্বরিয়া প্রেমে ব্রেক-আপ হওয়া কারণ

সালমান-ঐশ্বরিয়া প্রেমে ব্রেক-আপ হওয়া কারণ

বলিউডের আর সব খানদের চাইতে জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে সবচাইতে বেশি এগিয়ে আছেন যিনি, তিনি আর কেউ নন, বলিউডের ভাই নামে পরিচিত সালমান খান।

দুর্দান্ত একটি পরিবার, প্রচন্ড পরিশ্রম করার ক্ষমতা, অসাধারণ অভিনয়- এ সব কিছুই বিখ্যাত হতে সাহায্য করেছে সালমানকে। তবে এগুলোর সঙ্গে সঙ্গে আরো বেশ কিছু জিনিস পত্রিকার পাতায় বড় বড় অক্ষরে ছাপিয়ে দিয়েছে সালমানের নামকে।

আর সেগুলোর একটি হচ্ছে সালমান খানের প্রেমিকারা। বয়স ৫০ এর কোঠায় থাকলেও এখনি অব্দি বিয়ের সিঁড়িটা পেরুনো হয়নি সাল্লু ভাইয়ের। তবে তাতে কী? একের পর এক নতুন নারীকে নিজের জীবনের সঙ্গে জড়িয়েছেন সালমান খান।

তাদের কেউ খানিকটা সময় টিকে গিয়েছে, কেউ সিনেমার সেটের সঙ্গে সঙ্গেই বিদায় নিয়েছে ভাইয়ের কাছ থেকে। একের পর এক এত এত নারীকে ভালোবেসে ব্যর্থ হয়েও কিন্তু ভালোবাসার এতটুকু ঘাটতি পড়েনি সালমান খানের হৃদয়ে।

পর্দার সামনে ও পেছনের একসময়ের জনপ্রিয় জুটি ছিল সালমান-ঐশ্বরিয়া জুটি। এই জুটি ব্যবসা সফল যেমন সিনেমা উপহার দিয়েছে তেমনি একে-অপরের ভালবাসায় এতো ডুবে ছিলেন যে, সকল প্রেমিক-প্রেমিকা তাদের মত সম্পর্ক তৈরি করতে চাইত। কিন্তু এতো ভালবাসার পরও এই ফাটল কেন?

একটি দুটি কারণে নয়, এর পেছনে রয়েছে অসংখ্য কারণ। নিম্নে গুরুত্বপূর্ণ কিছু কারণ দেয়া হল-

১. ঐশ্বরিয়ার পরিবার কখনও সালমানকে পছন্দ করতেন না। এই বিষয় সালমান জানার পর তিনিও তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করতেন। এতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে থাকে।

২. সালমানের রক্ষণশীল ব্যবহার ঐশ্বরিয়ার জন্য অনেক সমস্যার সৃষ্টি করে। এতে দুইজনের মাঝে প্রায়ই ঝগড়া লেগে থাকত। যার ফলাফল ব্রেক-আপে রুপান্তরিত হয়।

৩. সালমান কমিটমেন্টের প্রতি আস্থাশীল ছিলেন। তিনি ঐশ্বরিয়ার সাথে খুব শীঘ্রই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চেয়েছিলেন কিন্তু ঐশ্বরিয়া তখন নিজের ক্যারিয়ারের তুঙ্গে ছিলেন তাই বিয়ে করতে ইচ্ছুক ছিলেন না।

৪. সালমানের বাজে ব্যবহার মূলত ঐশ্বরিয়াকে তার থেকে দূর করে দেয়। যেখানে ঐশ্বরিয়া শুটিং করতে যেত, সালমান সেখানে যেয়ে তার গাড়ি ভাঙচুর করত।

৫. সালমান মদ্যপ অবস্থায় ঐশ্বরিয়ার গায়ে অনেকবার হাতও উঠিয়েছিলেন। যা ঐশ্বরিয়াকে বিষণ্ণতায় ঘিরে ফিরেছিল। সালমানের সাথে ঐশ্বরিয়ার ব্রেক-আপ হবার পর ঐশ্বরিয়া বলেছিলেন, ‘আমার মনে হয় আমি কোন ভয়ংকর স্বপ্ন দেখছিলাম। যা এখন শেষ হয়েছে। আমি ঈশ্বরের নিকট অনেক কৃতজ্ঞ।’

নিউজ ডেস্ক : আপডেট ৬:০৩ পিএম, ২৯ মে ২০১৬, রোববার

এইউ

শেয়ার করুন
x

Check Also

Monir bak protibondhi

চাঁদপুর পৌরসভা বাকপ্রতিবন্ধি মনিরের দায় নেবে?

চাঁদপুর ...