Home / চাঁদপুর / শাহ্তলী জিলানী চিশতী কলেজ ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সভা
sahtoli-college

শাহ্তলী জিলানী চিশতী কলেজ ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সভা

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের এতিহ্যবাহী শাহতলী জিলানী চিশতী কলেজ, জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালয় ও ২৯নং উত্তর শাহতলী যোবাইদা বালক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যৌথ আয়োজনে ও চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের আহ্বানে র‌্যালী, মশক নিধন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধিতে আলোচনা সভা ও পরিচ্ছন্নতা অভিযান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (৫ আগস্ট) দুপুর ১২টায় কলেজ মিলনায়তনে কলেজ গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান সোহেল রুশদীর সভাপতিত্বে ও কলেজের ইংরেজি প্রভাষক মো: জহিরুল ইসলাম খান মুরাদের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক (উপসচিব) মোহাম্মদ শওকত ওসমান।

প্রধান অতিথি চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক (উপসচিব) মোহাম্মদ শওকত ওসমান বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় নির্দেশ দিয়েছেন মশক নিধন করতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালাতে। তাই আমরা চাঁদপুর জেলার সকল প্রতিষ্ঠানে একযোগে মশক নিধন অভিযান শুরু করেছি। মন্ত্রিপরিষদের সাথে ভিডিও কনফারেন্স হয়েছে।

অনুষ্ঠানটি শুধু ৪তারিখ ছিল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। পরে সম্মিলিতভাবে মশক নিধন অভিযান পরিচালনার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তারই প্রেক্ষিতে আজকের এই মশক নিধন অভিযান। সপ্তাহে কমপক্ষে ১দিন বিদ্যালয় বা কলেজ আঙ্গিনা পরিস্কার করতে হবে। ডেঙ্গু মশার লার্ভা সাধারনত স্বচ্ছ পানিতে পাওয়া যায়। তাই কোন স্থানে ৩/৪দিনের বেশি পানি জমে থাকতে দেওয়া যাবেনা। ডাবের খোসা, অব্যবহৃত টায়ার, ফুলের টব এধরনের বস্তুতে পানি জমে থাকলে দ্রুত অপসারনের ব্যবস্থা করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে রাষ্ট্রের পাশাপাশি সকল জনগণকে সচেতন হতে হবে । প্রত্যেক পরিবারকে সচেতন হতে হবে। কোন পরিবারকে ডেঙ্গু মশা থেকে নিরাপদ রাখতে পরিবারই মূখ্য ভূমিকা পালন করতে হবে। ডেঙ্গু হলে আতংকের কিছু নেই। সরকার সর্বাত্বক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এ সমস্যা সমাধানের জন্য।

ডেঙ্গুর ব্যাপারে আমরা প্রশাসন সচেতন আছি। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বেশিবেশি পানি পান ও বিশ্রাম এবং সাথে প্যারাসিটামল ট্যাবলেট খেলেই সেরে যাবে। তাই আতংক না হলে সঠিক চিকিৎসা নিলে ডেঙ্গু সেরে যাবে। আমরা সকলে মিলে ডেঙ্গু মশা প্রতিরোধ করব। কল্লাকাটা গুজব সমাধান হয়েছে। তেমনিভাবে আমরা মশার সমস্যাও সমাধান করব। ডেঙ্গুমশা সাধারনত সূর্য ওঠার ৩ঘন্টার মধ্যে কামড়ায় আর সূয অস্ত যাওয়ার সময় কামড়ায়। তাই ঔই সময় সকলকে সচেতন হয়ে চলতে হবে। তোমাদের বাড়ি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আশেপাশে যে অপরিস্কার না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

শিক্ষার্থীদের সুস্থ থাকতে গরমের সময় প্রচুর পরিমান পানি খেতে হবে। অপুষ্টি ও রক্তশূন্যতা দূর করতে প্রচুর পরিমান পুষ্টি জাতীয় খাবার খেতে হবে। চাঁদপুরের নদী ভাঙ্গন রক্ষা করার জন্য ১১শ কোটি টাকার তিনটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। ভাঙ্গনের স্থায়ী সমাধানের জন্য। পুরান বাজার হতে হাইমচর পর্যন্ত এ প্রকল্পের কাজ চলবে। এ বছর থেকে কার্যক্রম শুরু হবে। এ ব্যাপারে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী খুব আন্তুরিক ছিলেন। বাঁধ ভাঙ্গার বিষয়ে সার্বক্ষনিক খোজ-খবর নিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য রাখেন কলেন গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও দৈনিক চাঁদপুর খবরের সম্পাদক-প্রকাশক সোহেল রুশদী।
তিনি বলেন, চাঁদপুর জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত জেলার সকল প্রতিষ্ঠনে একযোগে পরিস্কার পরিছন্নতা অভিযান চলছে। আমি এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছি। তেমনি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শওকত ওসমান। ডেঙ্গুঁ আক্রান্ত হয়ে অনেকে মারা যাচ্ছে। শাহতলীতে দুই (২) জন মারা গেছে। তারা ঢাকা থেকে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে। চাঁদপুরে আক্রান্তের হার কম। আমাদের সর্তক থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, চাঁদপুরে নদী ভাঙ্গনে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী তাৎক্ষণিক ভাঙ্গনরোধে কাজ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। ছেলে ধরা গুজব শেষ হয়েছে। এখন আলোচিত ও আতংকের বিষয় ডেঙ্গুজ্বর। যার বাহক এডিস মশা। আমরা স্ব স্ব অবস্থান থেকে বাড়িঘর, আঙ্গিনা ও প্রতিষ্ঠান পরিছন্ন রাখব। আমাদের চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শওকত ওসমান স্যার নিজেই পরিস্কার অভিযানে অংশগ্রহন করেছেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, শাহতলী কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইন, জিলানী চিশতী কলেজের অধ্যক্ষ মো: হারুন-অর রশিদ, জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নেপাল চন্দ্র কর্মকার, ২৯নং উত্তর শাহতলী যোবাইদা বালক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আবুল কালাম আজাদ, মধ্য শাহতলী কাদেরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোসা: তহমিনা আক্তার।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শাহতলী কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইন, সহকারী অধ্যাপক সাহারা আক্তার, সহকারী অধ্যাপক মো: কামরুল হাসান, সহকারী অধ্যাপক মো: গোলাম সরোয়ার, সহকারী অধ্যাপক আলেয়া চৌধুরী, সহকারী অধ্যাপক শামীমা আক্তার, প্রভাষক মো: নুরুল বাতেন, প্রভাষক মাওলানা ছোহাইল আহমাদ চিশতী, প্রভাষক মিসেস নুরুন্নাহার বেগম মুক্তা, প্রদর্শক মো: মুঞ্জুর হোসেন পাটওয়ারী, প্রভাষক ফারজানা আক্তার, প্রভাষক মো: জিয়াউর রহমান, প্রভাষক মো: হানিফ মিয়া, প্রভাষক মো: মানিক মিয়া, প্রভাষক মো: হাবিবুর রহমান, প্রভাষক মো: শাহাদাৎ হোসেন, প্রভাষক মো: মাহবুবুর রহমান, প্রভাষক মো: মনজুরুল আলম পাটওয়ারী, প্রভাষক মোসা: মনোয়ারা খাতুন, সহকারী লাইব্রেরিয়ান নাছরীন আক্তার, শরীরচর্চা শিক্ষক হালিমা বেগম, জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো: শাহাদাৎ হোসেন, সিনিয়র শিক্ষক মো: রফিকুল ইসলাম পাটওয়ারী, সহকারী শিক্ষিকা ফাহিমা জাহান, সহকারী শিক্ষিকা রাবেয়া বেগম, সহকারী শিক্ষক মাওলানা শহিদুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক বিপুল চন্দ্র নন্দী, সহকারী শিক্ষক মো: ফজলুল করিম, সহকারী লাইব্রেরীয়ান মো: রবিউল আউয়াল খান, ২৯নং উত্তর শাহতলী যোবাইদা বালক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো: দিদার হোসেন মিজি, মো: কবির চৌধুরী, জিলানী চিশতী কলেজের কম্পিউটার অপারেটর মো: রানা সরকার, অফিস সহকারী মো: মেহেদী হাসান।

আলোচনা সভা শেষে মশক নিধন ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধিকল্পে চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক (উপসচিব) মোহাম্মদ শওকত ওসমান ও কলেজ গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান সাংবাদিক সোহেল রুশদী নের্তৃত্বে একটি র‌্যালি বের হয়ে কলেজ ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে।

র‌্যালি শেষে কলেজ প্রাঙ্গনে মশক নিধন ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে ডেঙ্গুমশার লার্ভা নিধনে ঔষুধ স্প্রে করেন অতিথিবৃন্দ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কলেজের ইসলাম শিক্ষা বিষয়ের প্রভাষক মাওলানা ছোহাইল আহমাদ চিশতী।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি, ৫ আগস্ট ২০১৯