Home / চাঁদপুর / গুণগত-পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করতে হবে : এসএম জাকারিয়া
food day

গুণগত-পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করতে হবে : এসএম জাকারিয়া

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম জাকারিয়া বলেছেন,‘টেকসই উন্নয়নের সাথে খাদ্যের বেশি সম্পর্ক রয়েছে। খাবার খেলেই হবে না, গুণগত এবং পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করতে হবে। আমাদেরকে বলে ভাতে ভাঙালি । কিন্তু স্বাস্থ্যগত নানা সমস্যা কারণে আমরা ভাত খাওয়া কমিয়ে দিচ্ছি। আমাদের খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে। আর তা না হলে স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি আরো বাড়বে।’

বুধবার ১৬ অক্টোবর সকাল ১০ টায় “আমাদের কর্মই আমাদের ভবিষ্যৎ, পুষ্টিকর খাদ্যই হতে পারে ক্ষুধামুক্ত পৃথিবী” এ শ্লোগানে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হলরুমে জেলা প্রশাসন ও জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত বিশ^ খাদ্য দিবস-২০১৯ উপলক্ষ্যে র‌্যালি শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘এক সময় দেশে খাদ্যের অভাব ছিলো। এখন সে জায়গা থেকে আমরা বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি। ২০৩১ সালের মধ্যে আমাদের টার্গেট এদেশের কোন মানুষই না খেয়ে থাকবে না। আমাদের জেডিপির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়েছে। দশ বছরে এ জেডিপি আরো দ্বিগুণ হবে। কেউ ইচ্ছে করলেও গরীব থাকতে পারবে না। এছাড়াও সরকার খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়ার জন্য নানান পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। আমরা প্রত্যেকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সরকারের পরিকল্পনাকে বাস্তবায়নের জন্য সহযোগিতা করতে হবে।’

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর উপ-পরিচালক আব্দুর রশিদ এর সভাপতিত্বে ও সদর কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিনের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা খাদ্য কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা মো.নোয়াখেরুল ইসলাম, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান, মতলব উত্তর কৃষি কর্মকর্তা পাভেল খান পাপ্পু প্রমূখ।

কৃষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন মো.শহীদ উল্যাহ। আলোচনা সভার পূর্বে পবিত্র কুরআন থেকে তিলাওয়াত করেন দেলোয়ার হোসেন। আলোচনা সভার পূর্বে শহরের ইলিশ চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ কার্যালয় এসে শেষ হয়।

করেসপন্ডেন্ট,১৬ অক্টোবর ২০১৯

ইন্টারনেট কানেকশন নেই