Home / চাঁদপুর / চাঁদপুরে স্ত্রীকে নির্মমভাবে হ*ত্যা করে রেলে কাটা পড়ে স্বামীর আত্মহ*ত্যা
blia-mu-case

চাঁদপুরে স্ত্রীকে নির্মমভাবে হ*ত্যা করে রেলে কাটা পড়ে স্বামীর আত্মহ*ত্যা

চাঁদপুরে স্ত্রীকে নির্মমভাবে হ*ত্যা করে ট্রেনের নিচে ঝাঁপিয়ে আত্মহ*ত্যা করেছেন স্বামী খোরশেদ আলম পাটওয়ারী (৬০)। রোববার (১৪ জুন) সকালে চাঁদপুর সদরের বালিয়া ইউনিয়নের গুলিশা গ্রামের এবং শহরের কোর্টস্টেশন সংলগ্ন পালপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত স্ত্রীর নাম বেবী বেগম। এ দম্পতির বিবাহিত ৩ কন্যা সন্তান রয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন পুলিশ ও স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানান, রোববার ভোররাতের কোন এক সময়ে নিজেদের বসতঘরে স্ত্রী বেবী আক্তারকে নৃশংসভাবে হত্যা করে স্বামী খোরশেদ আলম। এরপর ঘরের দরজায় তালা ঝুলিয়ে তিনি সকালে চাঁদপুর শহরে এসে কুমিল্লা থেকে চাঁদপুরে ছেড়ে আসা ড্রেমু ট্রেনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

স্থানীরা আরও জানান, খোরশেদ একসময় প্রবাসে ছিল। পরে দেশে এসে কিছুদিন সিএনজি চালালেও শেষে তিনি বেকার হয়ে পরেন। পরপর ৩বার ব্রেনস্ট্রোক করার পরে তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এতে করে তাদের সংসারে অভাব-অনটন দেখা দেয়।

চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ জানায়, খবর পেয়ে আমরা পৃথক ঘটনাস্থল থেকে স্ত্রী এবং স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে। তবে কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে সেটি তদন্ত স্বাপেক্ষে বলা যাবে। ঘটনাস্থলে হাতুড়ি ও স্ক্রু ডাইভার পাওয়া গেছে। মনে হচ্ছে, এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। তবে স্থানীয়রা আমাদের জানিয়েছেন, তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ ছিল। বিভিন্ন সময় খোরশেদ তার স্ত্রীকে নির্যাতন করতো। চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক আব্দুর রব জানান, কী কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে প্রাথমিকভাবে পারিবারিক কলহ বলেই মনে হচ্ছে।

চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে বেবী এবং চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতাল থেকে খোরশেদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতিবেদক- মাজহারুল ইসলাম অনিক ও শরীফুল ইসলাম। ১৪ জুলাই ২০১৯