Home / উপজেলা সংবাদ / হাজীগঞ্জ / হাজীগঞ্জে আ’লীগের সম্মেলন কেন্দ্র করে পদ-পত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ

হাজীগঞ্জে আ’লীগের সম্মেলন কেন্দ্র করে পদ-পত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ

হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সকল ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের সম্মেলন সম্পন্ন করার প্রস্তুতির খবর শুনার পর থেকে ইউনিয়ন পর্যায় পদ-পত্যাশী নেতাকর্মীরা নড়েছড়ে বসেছে। উপজেলার ৯ নং গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে পদ-প্রত্যাশীদের নানামুখী পদচারণা বেড়েছে।

জানা যায়, গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সর্বশেষ অনুষ্ঠিত হয় ২০১২ সালে। প্রায় ৭ বছর পর ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার লক্ষে একাধিক সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদ-প্রত্যাশী নেতারা ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ কর্মীদের সাথে সম্পর্ক বজায় রেখে চলেছেন। তবে এবারে কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে নতুন নতুন প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ চোঁখে পড়ার মত।

গত ১২ অক্টোবর জেলা ও ৩ নভেম্বও উপজেলা আওয়ামী লীগের সবুজ সংকেত পাওয়ার পর থেকে উক্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক প্রার্থীরা ইউনিয়নের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের খোজ খবর নেওয়া শুরু করে দিয়েছে। যে যখন যে ভাবে যাকে সময় পায় এলাকার চায়ের দোকানে কিংবা আড়ালে বসে নিজ নিজ অবস্থান তৈরিতে ব্যস্তসময় পার করতে দেখা যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, ৯নং গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে বর্তমানদের বাহিরেও রয়েছেন উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম। ১৯৬৮ সালে ছাত্র রাজনৈতির সাথে জড়িত হওয়ার পর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দায়িত্ব পালন শেষে বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন।

আরেক প্রবীণ নেতা হচ্ছেন উক্ত ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিন মন্টু। তিনি এবার আসন্ন ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী হিসাবে ইতিমধ্যে পুরো ইউনিয়নের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রেখে বেশ আলোচনায় রয়েছেন।

সাধারন সম্পাদক পদে আলোচনায় রয়েছেন গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যিনি নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে সম্মান জানিয়ে চেয়ারম্যান পদ থেকে সড়ে দাঁড়িয়েছেন সেই ত্যাগী ছাত্র নেতা ও বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মো. শাহআলম বাবুল। নতুন প্রার্থী হিসাবে আলোচনায় রয়েছেন ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি আলী আহম্মেদ ভূঁইয়া। আরেক ত্যাগী নেতা হচ্ছেন ফিরোজ আহম্মেদ হীরা।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসাবে নাম শুনা যাচ্ছে সাবেক ছাত্র নেতা ও বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ক্রীড়া সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক কাজলের নাম। এছাড়াও ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহবায়ক গাজী অলিউল্ল্যাহসহ আরো নতুন নতুন প্রার্থীর নাম শুনা যাচ্ছে আসন্ন ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে।

তৃণমূল কর্মীদের বেশ কয়েকজন জানায় ‘মাঠে অনেক প্রার্থী রয়েছে তা আমরা ইতিমধ্যে জেনেছি। কাউন্সিলে ভোটের মাধ্যমে এদের থেকে আমরা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসাবে তাদেরকে বেচে নিবো যাদের বিরুদ্ধে গুরুতর কোনো অভিযোগ নেই।

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী জসিম উদ্দিন বলেন, আমরা ইতিমধ্যে উক্ত ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রস্তুতি নিয়েছি, চলতি মাসের মধ্যেই উক্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনের কাজ সম্পন্ন করবো।

প্রতিবেদক : জহিরুল ইসলাম জয়, ৫ নভেম্বর ২০১৯