Home / জাতীয় / এবার ব্যাক্তিগত পিস্তল নিয়ে বিনা বাধায় বিমানবন্দরে ইলিয়াস কাঞ্চন
Biman Bangladesh Airlines
ফাইল ছবি : চাঁদপুর টাইমস

এবার ব্যাক্তিগত পিস্তল নিয়ে বিনা বাধায় বিমানবন্দরে ইলিয়াস কাঞ্চন

গত ১৪ ফেব্রুয়ারির চট্টগ্রামের বিমান ছিনতাই চেষ্টার ঘটনায় প্রাপ্ত খেলনা পিস্তল তদন্ত শেষ না হতেই এবার আসল পিস্তল নিয়ে বিনা বাধায় স্ক্যানিং মেশিন পার হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) বিকেলে নভোএয়ারের একটি আভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্রটি নিয়ে যান নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলনের চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

এ সময় অভ্যন্তরীণ টার্মিনালের প্রথম গেটের স্ক্যানার মেশিনের নজর এড়িয়ে ৯ এমএম পিস্তল আর ১০ রাউন্ড গুলি ব্যাগসহ বিনা বাধায় স্ক্যানিং মেশিন পার হন তিনি।

এরপর নভোএয়ারের বুকিং কাউন্টারে গিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন জানান, তার সঙ্গে নিয়ে আসা পিস্তলও গুলি ভর্তি ব্যাগ স্ক্যানারে ধরা পড়েনি।

পিস্তলটি সঙ্গে নিয়ে চট্টগ্রামে যেতে চান বলে কর্মকর্তাদের জানান ইলিয়াস কাঞ্চন।

বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে শাহজালাল বিমানবন্দরের মেম্বার সিকিউরিটি শাহ এমদাদুল হক, বিমানবন্দরের পরিচালকসহ (নিরাপত্তা) বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তা উপস্থিত হন ।

এ ঘটনায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ৫ কর্মীকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

প্রথম স্ক্যানিংয়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের ব্যাগে থাকা পিস্তল ধরা না পড়ার বিষয়টি দুঃখজনক বলে জানিয়েছেন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা পরিচালক নূরে আলম সিদ্দিকী।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারির বিমান ছিনতাই চেষ্টা ঘটনার পর শাহজালালসহ দেশের সব কটি বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে বলে সিভিল এভিয়েশন থেকে জানানো হয়েছিল।

ওই দিনে বিকেলে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া দুবাইগামী বিজি-১৪৭ ফ্লাইটে খেলনা পিস্তল নিয়ে উঠে বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেন পলাশ আহমেদ ওরফে মাহিবি নামে এক যুবক।

ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, সেসময় তার সঙ্গে থাকা খেলনা পিস্তলটি শাহজালাল বিমান বন্দরের স্ক্যানিং মেশিনে ধরা পড়েনি।

বিষয়টি নিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের তদন্তনাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (৫ মার্চ) আবার এ ঘটনাটি ঘটল।

এ ঘটনায় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন থেকে বক্তব্য নেয়া যায়নি।

এর আগে বিমান ছিনতাই চেষ্টার ঘটনার তদন্তের স্বার্থে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৬ নিরাপত্তাকর্মীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে কর্তৃপক্ষ।

এদের মধ্যে পাঁচজন কর্মীকে সাময়িক বরখাস্ত এবং একজনকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। গত সোমবার (৪ মার্চ) বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এসব তথ্য জানান।

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি অভ্যন্তরীণ রুটে ফটো আইডি ছাড়া যাত্রীদের বিমানে ওঠায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সিভিল এভিয়েশন। এখন থেকে এই রুটে টিকিট কাটার সময় যাত্রীদের ফটো আইডি প্রদর্শন করতে হবে। (যুগান্তর)

বার্তা কক্ষ
৬ মার্চ, ২০১৯