Home / চাঁদপুর / চাঁদপুরের ৭ উপজেলায় জয় পেলেন যারা
chanyarmen pic

চাঁদপুরের ৭ উপজেলায় জয় পেলেন যারা

চাঁদপুরের ৭টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থীদের মধ্যে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ী হয়েছেন। এর মধ্যে ৩ উপজেলায় চেয়ানম্যান প্রার্থী নির্বাচনের পূর্বে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়।

চাঁদপুরের ৭ উপজেলায় ভোটের ফলাফলে চাঁদপুর সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মনোনীত নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় অ্যাডভোকেট জাহিদুল ইসলাম রোমান, শাহরাস্তি উপজেলায় মো. ফরিদ উল্যাহ চৌধুরী, কচুয়া উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির বিজয়ী হয়েছেন। উপজেলা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা (অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক) মো. শওকত ওসমান ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে নির্বাচনের আগে কোন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী না থাকায় মতলব উত্তর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা এম.এ.কুদ্দুছ, দক্ষিণ উপজেলায় এইচ.এম. গিয়াস উদ্দিন ও হাজীগঞ্জ উপজেলায় গাজী মো. মাইনুদ্দিন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

চাঁদপুর সদরে চেয়ারম্যান নরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৮শ’ ৭৩ ভোট পেয়েছেন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে আইয়ুব আলী বেপারী ১ লক্ষ ১৬ হাজার ৪৫ ভোট পেয়েছেন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আবিদা সুলতানা পেয়েছেন ১ লক্ষ ১০ হাজার ১শ’ ৮ ভোট। তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা পেয়েছেন চেয়ারম্যান পদে মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়া ১৪ হাজার ৫শ’ ২৩ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান পদে অ্যাড. মহসিন খান পেয়েছেন ২ হাজার ৬শ’ ৯৭ ভোট, জাকের পার্টির দলীয় পার্টি নুরুল ইসলাম ১৩ হাজার ১শ’ ২৫ ভোট পেয়েছেন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে শিপ্রা দাস পেয়েছেন ১৮ হাজার ৮শ’ ১৫ ভোট।

মতলব উত্তরে ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ৮ প্রার্থী সমঝোতার মাধ্যমে একজনকরে ২ জন প্রার্থী মাঠে থাকায় নির্বাচন হয়ে দাঁড়ায় নিয়ম রক্ষার নির্বাচনে। নিয়ম রক্ষার এই নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোতাহার হোসেন খাঁন সুফল উড়োজাহাজ প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করে। অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফুটবল প্রতীক নিয়ে শাহিনা আক্তার জয়লাভ করে। নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোতাহার হোসেন খাঁন সুফল পেয়েছেন ১লক্ষ ২১হাজার ৫৩৮ ভোট আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শাহিনা আক্তার পেয়েছেন ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৩২৩ ভোট।

মতলব দক্ষিনে ভাইস চেয়ারম্যান মবিন সুজন (তালা) ৫০ হাজার ৫শ ৩৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মোস্তফা কামাল রনি সরকার (বই) পেয়েছেন ৫ হাজার ৬৪ ভোট। এছাড়াও মোঃ ফারুক পাটওয়ারী (চশমা) পেয়েছেন ৪শ ৩ ভোট ও বাদল ফরাজী (উড়োজাহাজ) পেয়েছেন ১শ ২৯ ভোট।

হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে একটি মাত্র পদে মোট ৮৩ টি ভোট কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৩৮ হাজার ৬’শ ২৭ ভোট। এর মধ্যে বৈধ ভোট ৩৭ হাজার ৯’শ ৫১ ভোট, অবৈধ ৬’শ ৭৬ ভোট। এখানে ৫ মহিলা প্রার্থীর মধ্যে প্রজাপতি প্রতীক নিয়ে মুক্তা আক্তার ২ হাজার ৯’শ ২৩ ভোট, বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক নিয়ে খাদিজা বকাউল ১’শ ১০ ভোট ও কলস প্রতীক নিয়ে পারভীন ইসলাম পেয়েছেন ১’শ ভোট।

কচুয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে শাহজাহান শিশির (নৌকা) ৪৪ হাজার ৮শ ৭৩, ফয়েজ আহমেদ স্বপন (আনারস) ৩২ হাজার ৬শ’ ৩৬ ও জিয়াউর রহমান হাতেম (কাপ পিরিচ) ৬ হাজার ২শ ৮১, সৈয়দ আব্দুল জব্বার বাহার ৩শ’ ৩২। ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাহবুব আলম (তালা) ৪৩ হাজার ৪শ’ ১০ ও শাহজালাল প্রধান জালাল (উড়োজাহাজ) ৩৯ হাজার ৩শ’ ১০। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সুলতানা খানম (ফুটবল) ৪১ হাজার ৬শ ৫৫, আমেনা আক্তার (কলস) ১৬ হাজার ২শ’ ২১, সালমা সহিদ (বৈদ্যুতিক পাখা) ১৭ হাজার ৫শ’ ২২ ও শ্যামলী খান (প্রজাপতি) ৭ হাজার ৬শ’ ৮৪।

ফরিদগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে জাহিদুল ইসলাম রোমান (নৌকা) ভোট পেয়েছেন ১ লক্ষ ৪৬ হাজার ৪৩, মো. তোফায়েল আহমেদ ভূঁইয়া (আনারস) ৩ হাজার ১শ’ ৫৩ ভোট ও আব্দুল গনি (আম) ৬শ’ ভোট পেয়েছেন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে মো. তসলিম আহমেদ (বই) ৪৩ হাজার ২শ’ ৫০, ওয়াহিদুর রহমান খান (টিয়াপাখি) ৩৮ হাজার ২শ ৮৯ ও মো. পাবেল হোসেন পাটওয়ারী (উড়োজাহাজ) ৩৬ হাজার ৩ ভোট পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাজুদা বেগম (ক্যামেরা) ৫৬ হাজার ৭শ’ ৩৯, সেলিনা আক্তার সেলি (প্রজাপতি) ৩০ হাজার ৩শ’ ৭৪ ও রেহানা বেগম (ফুটবল) ২৫ হাজার ৫৪ ভোট পেয়েছেন।

শাহরাস্তি উপজেলায় আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী ফরিদউল্যা (নৌকা) ২১ হাজার ১শ ৫৫ ভোট পেয়েছেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মকবুল হোসেন (আনারস) পেয়েছেন ২১ হাজার ৫১ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান পদে তোফায়েল আহমেদ মিরান (উড়োজাহান) ১৪ হাজার ৫শ’১১ ভোট ও মো. সাইফুল ইসলাম মোল্লা (চশমা) ১১ হাজার ৮শ’ ২০ ভোট পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কামরুন নাহার হাস ২০ হাজার ভোট পেয়ে নির্বাচিত ও তার নিকটতম প্রতিদ্বদন্দ্বী হাসিনা আক্তার (প্রজাপতি) ৭ হাজার ৮শ’ ৩৮ ভোট পেয়েছেন।

প্রতিবেদক:শরীফুল ইসলাম
২৫ মার্চ,২০১৯