Home / চাঁদপুর / চাঁদপুর লঞ্চঘাট : নাড়ির টানে বাড়ির পানে ঘরমুখো যাত্রীরা
ফাইল ছবি

চাঁদপুর লঞ্চঘাট : নাড়ির টানে বাড়ির পানে ঘরমুখো যাত্রীরা

ঈদের আনন্দ স্বজনদের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে রাজধানী ছেড়ে চাঁদপুরে আসতে শুরু করেছেন কর্মজীবি মানুষ। বৃহস্পতিবার চাঁদপুর লঞ্চ টার্মিনালে বাড়ি ফেরা মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

আজ (শুক্রবার) থেকে দীর্ঘ ছুটিতে যাচ্ছে সরকারি চাকরিজীবিরা। তাই নাড়ির টানে বাড়ির পানে ছুটতে দেরি করছেন না চাকরিজীবীরা।

নাড়ির টানে ঘরে ফেরা মানুষের আসল যুদ্ধ শুরু মূলত আজ থেকেই। কারণ এই দিন থেকে শুরু হচ্ছে ঈদুল আযহার সরকারি ছুটি। এছাড়া চাকরিজীবীদের একটি বড় অংশ বৃহস্পতিবার থেকে ঘরে ফিরতে শুরু করেছে। সকাল থেকে এই যাত্রা শুরু হলেও রাত থেকে ঘরে ফেরা মানুষের চাপ থাকবে সবচেয়ে বেশি বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

দোরগোড়ায় কড়া নাড়ছে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদ-উল-আযহা। যে করেই হোক আপন মানুষের সাথে ঈদের আনন্দ টুকু ভাগাভাগি করতে আপ্রাণ চেষ্টা চালান কর্মজীবি মানুষ।

ঈদ আসলেই আনন্দের জোয়ারে মেতে উঠেছে সারা মুসলিম বিশ্ব। আর ঈদুল আযহায় একটু আগেই বাড়ি আসতে চান সবাই। কোরবানীর হাটে না গেলেই নয়, নিজে দেখে শুনে পছন্দের পশুটি কিনতে চায় সবাই।

চাঁদপুরে যারা আছেন তারা সকলেই লঞ্চে করে নিজ নিজ গন্তব্যে আসছেন । প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও হাজার হাজার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি যাচ্ছে।

চাঁদপুর লঞ্চঘাট ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড়। প্রত্যেকের চোখে মুখে ফুটে উঠছে আনন্দের বন্যা। বাড়ি ফিরতি মানুষগুলোর মধ্যে প্রতিবছরের চেয়ে এবছর একটু বেশিই আনন্দ দেখা যাচ্ছে। ছুটি পেয়ে একটু বেশিই উচ্ছ্বসিত তারা। যাত্রীরা তিনি বলেন, জীবিকার তাগিদে সারাবছর যান্ত্রিক এই শহরে থাকলেও ঈদের সময় ঠিকই বাড়িতে ফিরতে হয়, না হলে মনে হয় জীবনটাই অর্থহীন।

অপরদিকে যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাঁদপুর প্রসাশন বাড়তি নিরাপত্তার ব্যাবস্থা করেছে। ইতোমধ্যে লঞ্চঘাটে সার্কিট ক্যামেরাও বসানো হয়েছে। গেটের সামনেই রয়েছে নৌপুলিশের মোবাইল টিম।

পথের এসব শত বিড়ম্বনা আর ঝক্কি ঝামেলা মেনে নিয়েই স্বজনদের সান্নিধ্যে ছুটছেন ঘরমুখো মানুষ। এ বিড়ম্বনার মধ্যেই যেন আলাদা আনন্দ খুঁজে পাচ্ছে যাত্রীরা। নাড়ীর টানে বাড়ির পানে দিন দিন ছুটে চলছেন কর্মব্যস্ত মানুষ।

এদিকে লঞ্চ কতৃপক্ষের উদ্দেশ্যে চাঁদপুর পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার বলেছেন, ‘লঞ্চ স্টাফদের কেবিন যাত্রীদের জন্য ভাড়া দেয়া যাবে না। যে সকল যাত্রী লঞ্চের কেবিন ভাড়া নেবে তাদের নাম পরিচয় মোবাইল নাম্বারসহ যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করতে হবে।

নিউজ ডেস্ক : আপডেট, বাংলাদেশ সময় ৫:০০ এএম, ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬, শুক্রবার
ডিএইচ

About The Author

প্রতিবেদক- শরীফুল ইসলাম

Leave a Reply