Home / শীর্ষ সংবাদ / হাইমচরে মেঘনার ভয়াবহ ভাঙ্গন : তীর সংরক্ষণ বাঁধ হুমকির মুখে
হাইমচরের তীর সংরক্ষণ বাধ

হাইমচরে মেঘনার ভয়াবহ ভাঙ্গন : তীর সংরক্ষণ বাঁধ হুমকির মুখে

চাঁদপুরের হাইমচরে মেঘনানদীর পূর্বপাড় মুল ভূ-খন্ড রক্ষায় স্থায়ী প্রকল্প রক্ষণাবেক্ষণ ও সংস্কার কাজের অভাবে ৩ শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন বাঁধ চরম হুমকির মুখে রয়েছে।

গত ২দিনের নিম্মচাপ এর প্রভাবে সৃষ্ট জোয়ার ও ঢেউয়ের আঘাতে বাঁধ এলাকার চরভৈরবী আমতলীতে ১ শ’ মিটার,গাজীনগরে ১ শ’৫০ মিটার সিসি ব্লক নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। তেলিমোড় এলাকাও চরম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

১৪ কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণের পর থেকে এ পযর্ন্ত প্রায় ৯ শ’ মিটার সিসি ব্লকের স্থায়ী বাঁধ নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেলেও সংস্কার কাজ না হওয়ায় পুরো প্রকল্প এখন হুমকির মুখে রয়েছে।

হাইমচরের তেলির মোড়সহ ১৪ কি.মি.স্থায়ী বাঁধ এলাকায় ক’টি স্থানে রক্ষণাবেক্ষণ ও সংস্কারকাজ না হওয়া বাঁধ এলাকার একাধিক স্থানে ভাঙ্গন দেখা দিলেও চলতি বছরে সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ১১ কোটি টাকার প্রকল্প বরাদ্দের অভাবে সংস্কার কাজ করতে পারেনি পানি উন্নয়ন বোর্ড।

ফলে চাঁদপুর সেচ প্রকল্প রক্ষায় হাইমচরের ৩শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প মেঘনা গর্ভে বিলীন হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। চরম আতংকের মধ্যে দিন কাটছে স্থানীয় অধিবাসীরা । জরুরি ভিত্তিতে নদীভাঙ্গন প্রতিরোধ প্রকল্প রক্ষায় সংস্কার কাজ বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

২০ ও ২১ অক্টোবর শুক্র ও শনিবার সাগরে সৃষ্ট নিম্মচাপের ফলে প্রচন্ড ঝড়ের সাথে পানি বৃদ্ধি ও ঢেউয়ে হাইমচরে আমতলী, গাজীনগর, তেলীর মোড়সহ বাঁধ প্রকল্প এলাকায় ভাঙ্গনের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটওয়ারীসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাবৃন্দ।

রবিবার (২২ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে হাইমচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটওয়ারী এলাকাবাসীকে বলেন , ‘ হাইমচর এলাকা রক্ষায় আমাদের প্রিয় এম পি ডা. দীপুমনির প্রচেষ্টায় জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার ৩শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করেছে। সংস্কার কাজের জন্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে ১১ কোটি টাকা প্রকল্প নেয়া হয়েছে। সংসদ সদস্য ডা. দীপুমনির পরামর্শে অচিরেই সংস্কার কাজ প্রকল্প জরুরি ভিত্তিতে বাস্তবায়ন করে হাইমচর রক্ষাবাঁধ রক্ষা করা হবে।

পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান এসএম কবির, উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রধানীয়া,সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম জাহিদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আহম্মদ আলী মাস্টার, স্থানীয় মেম্বার দেলোয়ার হোসেন সর্দার, পারভেজ হাওলাদার, শিক্ষক রেজাউল কবির রাজিব।

পানি উন্নয়ন বোর্ড হাইমচরের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নি¤œচাপের প্রভাবে আমতলীসহ তিন স্থানে ২শ’৫০ মিটার বাঁধ সিসি ব্লক নদী গর্ভে চলে গেছে।

এ ছাড়া বাঁধ নির্মাণের পর থেকে একাধিক স্থানে ৭শ’২৪ মিটার এলাকা বাঁধ সিসি ব্লকসহ ে প্রায় ৯শ’ মিটার এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রকল্পটি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রায় ১১ কোটি টাকা ব্যয় সাপেক্ষে প্রকল্প বরাদ্দের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রকল্প দেয়া আছে। বরাদ্দ সাপেক্ষে বাঁধ রক্ষায় সংস্কার কাজ বাস্তবায়ন করা হবে।

নিম্মচাপের ফলে ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন হাইমচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাসুম। রবিবার (২২ অক্টোবর ) সকাল ৮টায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।
প্রতিরেদক : বিএম ইসমাইল
আপডেট, বাংলাদেশ সময় ৭: ৪৫ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৭,রোববার
এজি

Leave a Reply