Home / উপজেলা সংবাদ / কচুয়া / অচিরেই কচুয়ার রহিমানগর কলেজ সরকারিকরণ করা হবে
Mohiuddin Khan Alamgir
ফাইল ছবি।

অচিরেই কচুয়ার রহিমানগর কলেজ সরকারিকরণ করা হবে

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি বলেছেন, ড. হেলাল উদ্দীন খান সামছুল আরেফিন সারা জীবন শিক্ষা বিস্তারে কাজ করে গেছেন। শিক্ষা বিস্তারে তিনি যে স্বপ্ন দেখতেন, বিশেষ করে কচুয়ার প্রাচীনতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রহিমানগর শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি হিসেবে এ কলেজকে জাতীয়করণ করণের স্বপ্ন দেখেছেন। তাঁর লালিত স্বপ্ন পূরণে রহিমানগর শেখ মুজিবুর ডিগ্রি কলেজকে অচিরেই সরকারিকরণে যাবতীয় প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে কচুয়ার রহিমানগর শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজের উদ্যোগে কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক লেখক ও গবেষক মরহুম ড. হেলাল উদ্দিন খান সামছুল আরেফিনের স্মরণে দোয়া ও শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আমার প্রয়াত ছোট ভাই মরহুম ড. হেলাল উদ্দীন খান সামছুল আরেফীনের শোক সভায় দাড়িয়ে তাঁর সম্পর্কে দু’চারটি কথা বলা আমার কামনা ছিলনা। আমি আমার বড় সন্তান ড. জালাল আলমগীর ও ভাই ড. হেলাল উদ্দীন খান সামছুল আরেফিনকে হারিয়েছি। শিক্ষা বিস্তারে তাদের স্বপ্ন পূরণে আমাদের সকলকে একযোগে এগিয়ে আসতে হবে।’

কলেজের অধ্যক্ষ ড. এটিএম শাহ আলম সিকদারের সভাপতিত্বে ও কলেজের দর্শন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান খন্দকার মোকাররম হোসেনের পরিচালনায় স্মরণ সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান শিশির, সাবেক যুগ্ম সচিব মো. রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন চৌধুরী সোহাগ, কচুয়া পৌর মেয়র নাজমুল আলম স্বপন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত ও স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন, কলেজের অধ্যক্ষ ড. এটিএম শাহ আলম সিকদার। বক্তব্য রাখেন, কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আহবায়ক শুভজিৎ রায়। এসময় কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহম্মদ আশরাফ হোসেন, কচুয়া বঙ্গবন্ধু সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শাহ মো. জালাল উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সালমা সহিদ, নব-নির্বাচিত জেলা পরিষদ সদস্য মো. সালাহ উদ্দিন ভূইয়া, রওনক আরা রতœা, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাই মুন্সি, শাহরিয়ার শাহীন, রহিমনগর ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ভিপি আহসান উল্যাহ চৌধুরী কায়েস, জিএস রাশেদুল হাসান চৌধুরী সুমনসহ কলেজের শিক্ষক, শিক্ষিকা, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মুনাজাত পরিচলনা করেন, পীরে কামেল শাহ মো. মেজবাউল ইসলাম লতিফী।

প্রতিবেদক- জিসান আহমেদ নান্নু
।। আপডটে, বাংলাদশে সময় ১১ : ৩০ এএম, ৬ জানুয়ারি ২০১৭ শুক্রবার
ডিএইচ

শেয়ার করুন
x

Check Also

মাঠ ছেড়ে পালাবেন না, তাহলে আমও যাবে ছালাও যাবে: নাসিম

খেলা ...