Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Home / চাঁদপুর / এক সপ্তাহের মধ্যে লঞ্চঘাটের বিশৃঙ্খলা ও সড়কের ট্রাক্টর বন্ধ হবে
Sp-press-breafing

এক সপ্তাহের মধ্যে লঞ্চঘাটের বিশৃঙ্খলা ও সড়কের ট্রাক্টর বন্ধ হবে

চাঁদপুর পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন এক সপ্তাহের মধ্যে চাঁদপুর লঞ্চঘাটের সিএনজি স্কুটার ও অটোবাইকের বিশৃঙ্খলা কমবে এবং সড়ক থেকে নিষিদ্ধ ট্রাক্টর বন্ধ হবে।

পুলিশ সুপার মো. জিহাদুল কবির জাতীয় পুলিশ প্যারেডে বিপিএম পদকে ভূষিত হওয়ার পর সোমবার সকাল ১১টায় পুলিশ সুপার কার্যালয় সম্মেলন কক্ষে চাঁদপুর শহরের আইন শৃঙ্খলা, মাদক, সন্ত্রাস ও যানজট নিরসনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমানের পরিচালনায় বক্তব্যে তিনি বলেন, এটি কোন প্রেস কনফারেন্স নয়, এটি হলো চা চক্রের মাধ্যমে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়।

নির্বাচনী ইশতেহারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে মাদক ও দুর্নীতিবাজ মুক্ত করার বাংলাদেশ ঘোষণা দিয়েছিলেন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সেই ইশতেহার বাস্তবায়নে কাজ করছি। তাছাড়া চাঁদপুর হলো বর্তমান আইজিপি জাবেদ পাটওয়ারী স্যারের নিজ এলাকা। এটিকে সম্পূর্ণভাবে মাদক, সন্ত্রাসসহ সকল অন্যায় অপরাধ মুক্ত করা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। আপনারা যারা সংবাদপত্র ও টিভি মিডিয়ার সাথে সম্পৃক্ত আপনাদের শক্তি ও অংশগ্রহণ আমি প্রত্যাশা করছি। আমি চাই চাঁদপুর জেলাকে ট্রাক্টর মুক্ত করতে।

ট্রাক্টরের বিরুদ্ধে আমাদের অভিয়ান অব্যাহত রয়েছে। যেখানে ট্রাক্টর পাওয়া যাচ্ছে তা ধরে পুলিশ লাইনে এনে রাখা হয়েছে। আপনারা মফস্বলের সাংবাদিকদের অবগত করবেন রাস্তায় ট্রাক্টর দেখলে যেন আমাকে অবগত করে। আমি তাৎক্ষণিক ট্রাক্টরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব।
তিনি আরও বলেন, ওপেন হাউজ ডে সব সময় ওপেন করা হয়। এতে তথ্য গোপনের কিছু নেই। যা কিছু আলোচনা করা হয় তা উন্মুক্তভাবে আলোচনা করা হয়।

লঞ্চঘাটের বিশৃঙ্খলা সম্পর্কে পুলিশ সুপার বলেন, আমি চাঁদপুরের স্থানীয় পত্রিকা থেকে অনেক তথ্য পেয়ে থাকি। একটি স্থানীয় পত্রিকা থেকে আমি জানতে পারি, শহরের লঞ্চ টার্মিণাল এলাকায় সিএনজি ও অটোরিক্সা চালকদের দৌরাত্মের শিরোনামে সংবাদটি। আমরা নির্দেশ দিয়েছি এই লঞ্চ টার্মিনাল ঘাটে যেন যাত্রী হয়রানির শিকার না হয়। সেজন্য গতকাল চাঁদপুর সদর এএসপি সদর সার্কেলের নেতৃত্বে স্থানটি পরিদর্শন করা হয়েছে। চাঁদপুর নৌ পুলিশের সহায়তা নিয়ে আমরা লঞ্চ টার্মিনাল ঘাট এলাকায় যাত্রী হয়রানি রোধে অভিযান চালানো হবে। আমরা ওই স্থানে সিএনজি স্কুটার ও অটোবাইকের ভাড়া নির্ধারণ করে দেব।

তিনি আরো বলেন, আমি পূর্বে যেই জেলাতে কাজ করেছি সেখানে নিজে দূরের যাত্রাগুলোতে গাড়ি চালাতাম। কিন্তু চাঁদপুরে যোগদানের পর একদিন সন্ধ্যায় গাড়ি চালাতে গিয়ে সিএনজি স্কুটার ও অটো বাইকের যানজটে পড়ে গাড়ি চালাতে পারেনি। এ পর্যন্ত আমি ১ ঘণ্টার জন্যও চাঁদপুরে গাড়ি চালাইনি। আমি পূর্বের অফিসারদের মতো চাঁদপুরে গরীবের জন্য পুলিশিং কার্যক্রমের মাধ্যমে তারা যেন আমার সাথে কথা বলতে পারে তা চালুর চেষ্টা করছি। চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে মান্দারী এলাকায় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র করার জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। এই স্থানে তদন্ত কেন্দ্র করা হলে ৪টি ইউনিয়নের মানুষ আইনী সহায়তা পাবে।

সাংবাদিকরা বলেন, রাস্তায় ট্রাক্টরের কারণে সাংবাদিকদের রক্ত ঝড়েছে। চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর, চান্দ্রা, রামপুর, মৈশাদী, শাহমাহমুদপুরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে ইট ভাটা ও বালু মহলের কারণে এখনো ট্রাক্টর চলাচল করছে। এদেরকে প্রতিহত করা প্রয়োজন। চাঁদপুর মডেল থানায় প্রতি মাসে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত হলেও প্রকৃত সাংবাদিকরা এর কোন দাওয়াতই পাচ্ছে না বাবুরহাটে বিপ্লব মাল নামে এক মাদক স¤্রাটকে তার সঙ্গীসহ আটক করা হয়।

কিন্তু অজ্ঞাত কারণেই পুলিশ বিপ্লব মালকে ছেড়ে দিয়ে সহযোগীদেরকে মাদক মামলায় জেলে পাঠিয়েছে। গত কয়েকদিন পূর্বে যে ৪৮ জন মাদকসেবী আত্মসর্ম্পন করেছে তাদেরকে কীভাবে মনিটনিং করা হচ্ছে সেই বিষয়েও প্রশ্ন তোলা হয়।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাসিম উদ্দিন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক লক্ষন চন্দ্র সূত্রধর, সাবেক সভাপতি ইকরাম চৌধুরী, শাহ্ মো. মাকসুদুল আলম, বিএম হান্নান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী, জিএম শাহীন, ইনডিপেনডেন্ট টিভি চাঁদপুর প্রতিনিধি আব্দুল আউয়াল রুবেল, দৈনিক মানব কন্ঠের জেলা প্রতিনিধি শাহাদাত হোসেন শান্ত, মাইটিভি চাঁদপুর প্রতিনিধি মুনোয়ার কানন, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ, সাধারণ সম্পাদক তালহা জুবায়ের, দৈনিক মতলবের আলোর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কেএম মাসুদ প্রমুখ।

এর পূর্বে পুলিশ সুপার মো. জিহাদুল কবির চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক লক্ষন চন্দ্র সূত্রধরকে পৃথকভাবে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। চাঁদপুর প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ পুলিশ সুপার মো. জিহাদুল কবিরকে জাতীয় প্যারেডে পুরস্কৃত হওয়ায় ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

সিনিয়র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯