Home / উপজেলা সংবাদ / মতলব উত্তর / বছর না যেতেই মতলব সেতুর সংযোগ সড়কে বিশাল গর্ত
matlab-bridge-hole
আগের ছবি (বর্তমানে এটি মেরামত হয়েছে)

বছর না যেতেই মতলব সেতুর সংযোগ সড়কে বিশাল গর্ত

চাঁদপুরের মতলব উত্তর ও দক্ষিণের ধনাগোদা নদীর ওপর নির্মিত একমাত্র সংযোগ সেতুর বেহাল অবস্থা । মতলব সেতুর বয়স ১ বছর না হতেই সংযোগ সড়কে দেখা দিয়েছে ফাটল ও বড় বড় গর্ত। মতলব সেতুর উত্তর পাশের সংযোগ সড়কে একটি বিরাট অংশে গর্ত।

শুক্রবার (১২ জুলাই) গভীর রাতে বৃষ্টির পড়ে গর্তের সৃষ্টি হয়। সেতু পারাপারে আতঙ্ক কাজ করছে গাড়িচালক ও যাত্রীদের মধ্যে। সরেজমিনে দেখা যায়, সেতুটির সংযোগ-সড়কের উত্তর পাশের একটি অংশ ধসে পড়েছে।

সেখানে তৈরি হয়েছে একটি বিরাট আয়তাকার গর্ত। ওই গর্তের পাশ দিয়েই ঝুঁকি নিয়ে চলছে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মাইক্রোবাস, অ্যাম্বুলেন্স, বাস, ট্রাক, পিকআপ ভ্যান ও ইজিবাইকসহ অন্যান্য যানবাহন। ওই অংশের পাশ দিয়ে চলাচলের সময় দুর্ঘটনা ও জীবনহানির ভয়ে যাত্রী ও গাড়িচালকদের চোখেমুখে আতঙ্কের ছাপ বিরাজ করছে।

সেতুটির ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচলের সংখ্যাও কমে গেছে এতে। রিকশা চালক মো. হুমায়ুন বলেন, সেতুটির সংযোগ-সড়কে ধস নামায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেতুর ওপর দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছি। দুর্ঘটনার ভয়ে আতঙ্ক কাজ করছে মনে। ঝুঁকি নিয়েই চলছে সব ধরনের যানবাহন। সেতুর ইজারাদার ভিপি আতাউর দাবি করেন, গত কয়েকদিনের ভারি বৃষ্টিপাতের ফলে সংযোগ-সড়কে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এটি এখনো মেরামত না হওয়ায় যানচলাচল ব্যাহত হচ্ছে এবং ঝুঁকি নিয়েই চলছে যানবাহন।

মতলব দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এ এইচ এম গিয়াস উদ্দিন বলেন, রোববার (১৪ জুলাই) দুপুরে সংযোগ-সড়কের ধসে পড়া অংশটি দেখতে যাই। তিনি বলেন সংযোগ-সড়কে নি¤œমানের মালামাল ব্যবহার করায় এত অল্প সময়ে সেটি ধসে পড়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

চাঁদপুর সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম বলেন, কয়েক দিন ধরে বৃষ্টির পানি ওই অংশ দিয়ে গড়িয়ে পড়ায় পানির চাপে এ সমস্যা হয়েছে। ধসে যাওয়া অংশটি মেরামত করা হচ্ছে। ২০১৫ সালে প্রায় ৮৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ধনাগোদা নদীর উপর সাড়ে তিন কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতুটির নির্মাণকাজ শুরু হয়।

প্রতিবেদক- মাহফুজ মল্লিক
১৪ জুলাই ২০১৯