Home / জাতীয় / পাসপোর্ট নয় ট্রাভেল পারমিটে দেশে ফিরছে খোকার মরদেহ : ঢাকায় হবে ৪ দফা জানাযা

পাসপোর্ট নয় ট্রাভেল পারমিটে দেশে ফিরছে খোকার মরদেহ : ঢাকায় হবে ৪ দফা জানাযা

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। পাসপোর্ট না থাকায় সাদেক হোসেন খোকার মৃতদেহ ট্রাভেল পারমিট নিয়ে দেশে ফেরত আনা হবে।

পাসপোর্ট না থাকায় গুরুতর অসুস্থ হওয়ার পরেই খোকার দেশে ফিরে আসা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল। এ সময় বিএনপির পক্ষ থেকে ও তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়ে খোকার পাসপোর্ট ইস্যুর আবেদন জানানো হয়। তবে গতকাল পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম জানান, সাদেক হোসেন খোকা তাঁর স্ত্রীসহ ‘ট্রাভেল পারমিট’ নিয়ে দেশে ফিরতে পারবেন। ট্রাভেল পারমিটের জন্য আবেদন করা হলে বাংলাদেশ মিশন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

সাদেক হোসেন খোকা তাঁর স্ত্রীসহ ‘ট্রাভেল পারমিট’ নিয়ে দেশে ফিরতে পারবেন বলে জানান মো. শাহরিয়ার আলম। ট্রাভেল পারমিটের জন্য আবেদন করা হলে বাংলাদেশ মিশন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে খোকার প্রথম জানাজা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ সময় ৫ নভেম্বর মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় এই জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

সাদেক হোসেন খোকার প্রথম জানাজায় আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ প্রবাসী বাঙালিরাও অংশ নেন। জানাজায় বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। সেখানে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা একাত্তরের গেরিলা বাহিনীর এই সদস্যকে ‘গার্ড অব অনার’ প্রদান করেন।

অপরদিকে সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ আগামী বৃহস্পতিবার দেশে ফিরবে বলে এরই মধ্যে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালামও খোকার মরদেহের সঙ্গে ঢাকায় ফিরবেন বলে জানান শায়রুল কবীর খান।

ওই দিন সকালে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে করে একাত্তরের গেরিলা বাহিনীর এই কমান্ডারের মরদেহ ঢাকায় পৌঁছাবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল।

চারদফা জানাজা শেষে সন্ধ্যায় জুরাইন কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে। বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ ও সাদেক হোসেন খোকার এপিএস নজরুল ইসলাম কিরণের সঙ্গে কথা বলে এমনটাই জানা গেছে।

তারা বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা। এরপর বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার প্রথম জানাজা হবে।

‘সেখান থেকে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে নেওয়া হবে। দলের পক্ষ থেকে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা প্রয়াত খোকার মরদেহে ফুলেল শ্রদ্ধা জানাবেন। বাদ জোহর দলীয় কার্যালয়ের সামনে জানাজা হবে। সেখান থেকে তার নিজ জন্মস্থান রাজধানীর গোপীবাগ নেওয়া হবে মরদেহ।’
আজাদ ও কিরণ জানান, বিকেলে গোপীবাগ ও ধুপখোলা মাঠে খোকা সাহেবের আরও দুটি জানাজা হবে।

তবে ওই জানাজার নির্দিষ্ট সময় তারা জানাতে পারেননি। কিরণ বলেন, মরদেহের সঙ্গে স্যারের (সোদেক হোসেন খোকা) বড়ছেলে ইসরাক হোসেনসহ পরিবারের সদস্যরা রয়েছে। তারা ঢাকায় পৌঁছানোর পর দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর অন্যান্য সিদ্ধান্ত নেবেন।

তিনি বলেন, সাদেক হোসেন খোকা যেহেতু মুক্তিযোদ্ধা তাই দিনের কোনো একসময় তার মরদেহ সর্বস্তরের জনসাধারণের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য শহীদ মিনারেও নেওয়া হতে পারে।

প্রসঙ্গত, অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

খোকা ২০১৪ সালের ১৪ মে সপরিবারে চিকিৎসার জন্য পর্যটক ভিসায় নিউ ইয়র্কে যান। ২০১৭ সালে খোকা ও তাঁর স্ত্রী ইসমত হোসেনের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর তাঁরা পাসপোর্টের জন্য নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেটে আবেদন করেছিলেন। কিন্তু এরপর তাঁরা পাসপোর্ট ফেরত পাননি।

বার্তা কক্ষ, ৫ নভেম্বর ২০১৯