Home / আরো / খেলাধুলা / ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া উত্তেজনাপূর্ণ অ্যাশেজ সিরিজ

ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া উত্তেজনাপূর্ণ অ্যাশেজ সিরিজ

চলছে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। আর এই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ এর মরসুম শুরু হলো অ্যাশেজ সিরিজ- ২০১৯ দিয়ে। যেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া।

এবারের অ্যাশেজ এর স্বাগতিক দল হচ্ছে ইংল্যান্ড।তাই খেলা হবে ইংল্যান্ড এর মাঠে।

এদিকে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কেটে ওঠার পর ফেরা স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নারকেও জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা যাবে। যে ম্যাচে বল টেম্পারিংয়ে দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন সেই দক্ষিন আফ্রিকা সফরে স্মিথ ছিলেন অধিনায়ক এবং ওয়ার্নার ছিলেন সহ-অধিনায়ক।

এরই মধ্যে এই সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে নিয়েছে এ্যাওয়ে দল অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়ার এই জয়ের ম্যাচে স্টিভ স্মিথ দুই ইনিংসেই তাঁর রানকে নিয়ে গেলেন তিন অংকের ঘরে। অর্থাৎ,স্মিথ উভয় ইনিংসেই হার না মানা শতরান করে দলকে শক্ত ভিত্তি গড়ে দিয়েছিলেন।

এর আগে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে উভয় ইনিংসেই শতরান করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন মাত্র চারজন। স্টিভেন স্মিথ সেই কৃতিত্ব করার পর সংখ্যাটা দাঁড়ালো পাঁচ জনে। এটি এমনই এক কৃতিত্ব যেটি করতে চাইবেন যেকোন টেস্ট খেলোয়াড়।

চলছে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।দ্বিতীয় ম্যাচের প্রায় দুই দিন অর্থাৎ,পাঁচটি সেশন বৃষ্টিতে ভেসে গেছে।

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় টেস্টে টসে হেরে প্রথম ইনিংসে দুই শত আটান্ন রান করেছে সবগুলো উইকেট হারিয়ে। অন্যদিকে,অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে করেছে দুই শত পঞ্চাশ রান সবকটি উইকেট হারিয়ে। এতে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড লিড পেয়েছে আট রানের।

দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ড ডিক্লেয়ার করেছে দুই শত আটান্ন রানে। পাঁচ উইকেট হারিয়ে।ইংল্যান্ড দুই শত ছেষট্টি রানের টার্গেট দিয়েছে অস্ট্রেলিয়াকে। পঞ্চম দিনের খেলায় জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন ছিল দুই শত আটচল্লিশ রান। ওভার বাকি ছিল ৪৮টি। ছয় উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া শেষ পর্যন্ত ৪৭ ওভার তিন বলে করে ১৫৪ রান । জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল অস্ট্রেলিয়ার সবকটি উইকেট।

যেহেতু ইংল্যান্ড সবকটি উইকেট হারাতে পারেনি অস্ট্রেলিয়ার তাই যথারীতি ড্র হয়। দুই ম্যাচ শেষে অস্ট্রেলিয়া( ১-০) তে এগিয়ে আছে।

প্রতিবেদক- ইমতিয়াজ আহমেদ, ২১ আগস্ট ২০১৯