Home / চাঁদপুর / চাঁদপুরে দুর্যোগ প্রশমন দিবসে মহড়া র‌্যালি ও আলোচনা
disaster-mitigation

চাঁদপুরে দুর্যোগ প্রশমন দিবসে মহড়া র‌্যালি ও আলোচনা

চাঁদপুরে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আন্তজাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত হয়েছে। `দুর্যোগ সহনীয় আবাস গড়ি, নিরাপদে বাস করি ‘এ

চাঁদপুরে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আন্তজাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত হয়েছে। `দুর্যোগ সহনীয় আবাস গড়ি, নিরাপদে বাস করি ‘এ শ্লোগানকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে র‌্যালি,আলোচনা সভা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার ও দুর্যোগের বিষয়ে মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান বলেন,‘আমরা সবাই যদি বাসা-বাড়ি তৈরি করার সময় দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি-ঘর তৈরি করি তাহলে দুর্যোগ মোকাবেলা সম্ভব হবে। ঘর বাড়ি নির্মাণ করার সময় উপকরণগুলো মজমুত রাখতে হবে। সরকারের বিধি অনুযায়ী সকলকে বাড়ি-ঘর তৈরি করা উচিৎ। উপকূলীয় অঞ্চলে সংকেত অনুযায়ী সরিয়ে নেয়ার মত বাড়ি-ঘর তৈরি করতে হবে।’

সরকার নানা দুর্যোগ মোকাবেলার জন্য নানামূখি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ৬৪ জেলায় ১১ হাজার ৬০৪টি দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি ও ১৪ জেলায় ১শ’টি আশ্রয়কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন। এর মধ্যে চাঁদপুরে ১৫টি আশ্রয় কেন্দ্র রয়েছে। দুর্যোগ মোবাবেলায় দেশ প্রস্তুত রয়েছে।

রবিবার ১৩ অক্টোবর সকাল ১০ টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস.এম জাকারিয়ার সভাপতিত্বে এতে সভাপতিত্ব করেন।

সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.আসাদুজ্জামান,স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা.সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী, ফায়ার সার্ভিস এর সিভিল ডিফেন্স চাঁদপুর এর উপ-পরিচালক ফরিদ উদ্দিন প্রমূখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা কেবিএম জাকির হোসেন।

আলোচনা সভার আগে সার্কিট হাউজ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কে প্রদক্ষিণ হয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয় সম্মুখ্যে এসে শেষ হয়।

পরে দুর্যোগ প্রস্তুতিমূলক সময়ে করণীয় বিষয়ে চাঁদপুর সদর উত্তর ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স সদস্যরা বিভিন্ন মহড়া প্রর্দশন করে।

মহড়ার বিষয়বস্তু ছিল তেল ভর্তি ড্রামে আগুন ধরে গেলে ভিজা চটের বস্তা দিয়ে আগুন নিভানো ও অগ্নি নিবারণ যন্ত্রের মাধ্যমে আগুন নিভানো। বসতঘরে আগুন লাগলে পানির মাধ্যমে নিভানো। দুর্ঘটনায় আহত ব্যাক্তিদের দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে ফায়ার সার্ভিসের অত্যাধুনিক যন্ত্রের সাহায্যে বের করে। এ্যাম্বুলেন্সের মাধ্যমে হাসপাতালে বা স্কাউট-রেড ক্রিসেন্ট সদস্যদের দিয়ে চিকিৎসা সেবাসহ ইত্যাদি সেবা প্রদান করা।

আনোয়ারুল হক, ১৩ অক্টোবর ২০১৯

ইন্টারনেট কানেকশন নেই