Home / আরো / খেলাধুলা / ক্রাইস্টচার্চে হামলা : তামিমের সাথে কথা বললেন আফ্রিদি
Tamim afridi

ক্রাইস্টচার্চে হামলা : তামিমের সাথে কথা বললেন আফ্রিদি

বিশ্ব ক্রিকেটের কালো দিন হিসেবে চিহ্নিত হতে পারত ১৫ মার্চ তারিখটি। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের তালিকায় থাকতে পারত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ১০-১২ জন ক্রিকেটারের।

নেহায়েত পরম করুণাময়ের কৃপায় রক্ষা পেয়েছেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা। তবে মসজিদ আল নুরে করা এ হামলায় অন্তত ৪৯ জন নিহত হওয়ার খবর জানা গিয়েছে।

এ ঘটনায় নিন্দা ও শোকে মুহ্যমান সারা বিশ্ব। এর সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলও জড়িত থাকায় ক্রিকেট বিশ্বের পরিচিতি মুখরাও নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরছেন সবার সামনে। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও শহীদ আফ্রিদিও ব্যতিক্রম নন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সিনিয়র সদস্য তামিম ইকবালের সঙ্গে বেশ সখ্যতা রয়েছে আফ্রিদির। বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস এবং পিএসএলে পেশোয়ার জালমির হয়ে একসঙ্গে খেলেছেন এ দুজন। তাই তো ঘটনার পরপরই তামিমের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। যা আফ্রিদি জানিয়েছেন নিজের টুইট বার্তায়।

নিজের টুইটার প্রোফাইলে আফ্রিদি লিখেন, ‘ভয়াবহ দুর্ঘটনা ক্রাইস্টচার্চে। আমি সবসময়ই নিউজিল্যান্ডকে সবচেয়ে শান্তিপূর্ণ একটি দেশ হিসেবেই দেখেছি। সেখানে মানুষরাও খুব বন্ধুপরায়ণ। আমি তামিমের সঙ্গে কথা বলেছি। বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা এবং স্টাফরা নিরাপদে আছে এটাই বড় পরিত্রাণ। এসব বিষয়ে সারাবিশ্বের এক জোট হওয়া উচিৎ। ঘৃণা ছড়ানো বন্ধ করা উচিৎ। হামলায় নিহতদের জন্য দোয়া। আল্লাহ্‌ সহায় হন।’

তামিম-মুশফিকদের নিয়ে উদ্বিগ্ন ভারত ও পাকিস্তানের অধিনায়ক

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদ আল নুরে জঙ্গি হামলায় প্রায় ৫০ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় অলৌকিকভাবে বেঁচে গেছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। মাত্র ৫ মিনিটের ব্যবধান এবং বিলম্ব করায় বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা ওই সময় মসজিদে তখন উপস্থিত ছিলেন না। যে কারণে ক্রিকেটাররা বেঁচে যান।

ক্রাইস্টচার্চে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞে হতবাক পুরো বিশ্ব। যেখান থেকে বাদ যায়নি বিশ্বের ক্রিকেট তারকারাও। ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ এ ঘটনায় বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক স্পিড স্টার শোয়েব আখতারও।

টুইটারে বিরাট কোহলি লিখেন, ‘শকিং অ্যান্ড ট্রাজিক। ক্রাইস্টচার্চের এই নৃশংস ঘটনায় যারা হতাহত হয়েছে, সবার প্রতি আমার অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে গভীর সমবেদনা। আমার চিন্তা-চেতনাজুড়ে রয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ভালো থাকুন।’

শোয়েব আখতার লিখেছেন, ‘ক্রাইস্টচার্চ মসজিদের মধ্যে হামলার ঘটনা দেখে আমি হতভম্ভ। বর্তমান সময়ে এসে আমরা প্রার্থনার জায়গাগুলোতেও নিরাপদ নই?’

বার্তা কক্ষ
১৫ মার্চ,২০১৯