Home / লাইফস্টাইল / সন্তোষ গুপ্ত ছিলেন একজন সাংবাদিক ও কবি

সন্তোষ গুপ্ত ছিলেন একজন সাংবাদিক ও কবি

সাংবাদিক ও কবি সন্তোষ গুপ্ত ১৯২৫ সালের ৯ জানুয়ারি ঝালকাঠি জেলায় জন্মগ্রহণ করেন । ২০০৪ সালের এ দিনে মৃত্যুবরণ করেন সাংবাদিক ও কবি সন্তোষ গুপ্ত।

তার প্রথম যৌবন কাটে কলকাতায় । সেখানে থাকতেই সম্পর্ক ছিল কমিউনিস্ট পার্টির সঙ্গে। দেশভাগের পর ঢাকায় এসেও প্রথম সুযোগেই যোগাযোগ স্থাপন করেছিলেন পার্টির সঙ্গে। পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার এক বছরের মধ্যেই দমননীতি নেমে আসে কমিউনিস্ট পার্টির ওপর । পরে গ্রেপ্তার হন সরদার ফজলুল করিম, রেল শ্রমিক মো.আবদুল বারী,সন্তোষ গুপ্ত এবং তার মা।

জেল থেকে বের হওয়ার পর ১৯৫৭ সালে সংবাদে যোগদান করেন। তিনি দৈনিক আজাদেও কাজ করেছেন। ১৯৫৮ সালে আইয়ুবের সামরিক শাসনের শুরুতেই তাকে আবার গ্রেপ্তার করা হয়। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন কলকাতায় ন্যাপের মুখপত্র নতুন বাংলার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

১৯৭১ সালে সন্তোষ গুপ্ত প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ১৯৭৫-এর ১৫ আগস্টের বঙ্গবন্ধু এবং পরে ৩ নভেম্বর ১৯৭৫ সালে জাতীয় ৪ নেতার হত্যার পর স্বাভাবিকভাবে অসাম্প্রদায়িকতা ও গণতন্ত্রের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন সন্তোষ গুপ্ত।

দীর্ঘ প্রায় পাঁচ দশকের সাংবাদিকতা জীবনে তিনি বিভিন্ন পদে কাজ করেছেন। পাঠক মহলে সমাদৃত ছিল সন্তোষ গুপ্তের লেখা ‘অনিরুদ্ধের কলাম’। কবিতা, শিল্পকলা, চিত্রকলা, রাজনীতি, সাহিত্যসহ বিভিন্ন বিষয়ে তিনি ১৪টি বই লিখেছেন।

দেশের সব জাতীয় দৈনিকে তার বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ,কলাম ও সমালোচনামূলক নিবন্ধ ছাপা হয়েছে। সন্তোষ গুপ্ত সাংবাদিকতা ও সাহিত্যে অবদান রাখার জন্য একুশে পদক, শেরেবাংলা পদক, মাওলানা তর্কবাগীশ পদক, জহুর হোসেন স্মৃতিপদক,স্বাধীনতা পুরস্কারসহ বহু পদক অর্জন করেছেন।

বার্তা কক্ষ
৬ আগস্ট ২০১৯

এজি

শেয়ার করুন