Home / শীর্ষ সংবাদ / চাঁদপুর জেলার প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র হাজীগঞ্জ বাজার বন্ধ ঘোষণা
হাজীগঞ্জ বাজার বন্ধ

চাঁদপুর জেলার প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র হাজীগঞ্জ বাজার বন্ধ ঘোষণা

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় হাজিগঞ্জবাসীর সার্বিক নিরাপত্তা বিবেচনায় ২ জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত হাজীগঞ্জ বাজার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ১ জুন সোমবার বিকেলে চাঁদপুর জেলা প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র হাজীগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের এক বৈঠক এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদ মাঠে হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং সকল শ্রেণির ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের উপস্থিতিতে এমন জনগুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

৩১ মে রবিবার হাজীগঞ্জে একদিনের মাথায় করোনার উপসর্গ নিয়ে চার জনের মৃত্যুর খবরে সর্বমহলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ সংকট নির্মুলে করোনা পরিস্থিতি পরবর্তী করনীয় শীর্ষক আলোচনায় হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠকে বসেন জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসন।

সোমবার বাদ আছর হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদ মাঠে হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ ও সকল শ্রেনীর ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের একত্বে বসে প্রশাসনের এমন জনগুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

এতে সিদ্ধান্ত হয়, ২ জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত হাজীগঞ্জ বাজার বন্ধ থাকবে। কেউ বিনা কারনে বাসা বাড়ি থেকে বের হলে ব্যবস্থা। এই আইন অমান্যকারী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে কঠোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আগামি ৯ দিন কোন ৪ চাকার যানবাহন, সিএনজি, অটো রিক্সা চলাচল করবে না। এই আইন বাস্তবায়নের পুলিশের কঠোর নির্দশনা পালনে মাঠে থাকবে পুলিশ প্রশাসন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী মো. মাঈনুদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক মুরাদ, হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আ স ম মাহবুবউল আলম লিপন, হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন রনি, হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আশফাকুল আলম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হায়দার পারভেজ সুজনসহ ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ।

এ সময় উন্মুক্ত আলোচনায় ব্যবসায়ীদের মতামত, পুরাপুরি লকডাউন চলমান থাকা কালীন ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পরবর্তী কি ধরনের সুযোগ সুবিদা, ব্যবসায়ীদের দোকান ভাড়া, বিদ্যুৎ বিলসহ নানা আলোচনা উঠে আসে।

প্রতিবেক : জহিরুল ইসলাম জয়, ১ জুন ২০২০

ইন্টারনেট কানেকশন নেই