Home / উপজেলা সংবাদ / হাজীগঞ্জ / হাজীগঞ্জে প্রবাসীর কাছ থেকে চাঁদা দাবির অভিযোগ
Hajiganj

হাজীগঞ্জে প্রবাসীর কাছ থেকে চাঁদা দাবির অভিযোগ

চাঁদপুর হাজীগঞ্জে এক প্রবাসীর কাছ থেকে চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া যায়। চাঁদাবাজদের ভয়ে প্রবাসীর পরিবার নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে। প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ভুক্তভোগী প্রবাসী ও তার পরিবার।

জানা যায়, হাজীগঞ্জ উপজেলার ১০নং গন্ধর্ব্যপুর দক্ষিন ইউনিয়নের জয়শরা গ্রামের মৃত নরুল হক বৈদ্দের ছেলে কুয়েত প্রবাসী শাহ আলম চলতি বছরে প্রথমে দেশে আসেন। দেশে এসে লকডাউনে পড়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে বিপাকে পড়েছে এই প্রবাসী।

গত পহেলা সেপ্টেম্বর রাতে প্রায় ১৫/২০ জনের মত একদল সন্ত্রাসী বাহিনী প্রবাসীর বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় প্রবাসী শাহআলম বাড়িতে না থাকায় স্ত্রী জাহিদা বেগমের কাছে একটি কাগজ ও ফোন নাম্বার দিয়ে প্রবাসীকে যোগাযোগ করতে বলে।
প্রবাসী শাহআলম ঢাকা থেকে দ্রুত বাড়িতে আসে এবং সন্ত্রাসীদের দেওয়া কাগজ দেখেন।

কাগজে উল্লেখ দেলোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তি তার কাছে ৩ হাজার দিনার পাবে। কিন্তু প্রবাসী শাহআলমের স্বাক্ষরের সাথে চাঁদাবাজদের দেওয়া স্বাক্ষরের কোন মিল নেই। পরে তাদের দেওয়া ফোন নাম্বরে যোগাযোগ করলে তারা মিথ্যা অভিযোগ এনে ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এ খবর শুনে প্রবাসী শাহআলম দিশেহারা হয়ে পড়েন।

বিষয়টি পর্যালোচনা করে বিস্তারিত জানা যায়,প্রায় ২০ বছর পূর্বে হাজীগঞ্জের বড়কূল গ্রামের মৃত আব্দুল রশিদ মিয়ার ছেলে দেলোয়ার হোসেন ৩ হাজার টাকা পাবে মর্মে প্রবাসী শাহআলমের ববিরুদ্ধে এটি কাগজ তৈরি করেন।এই টাকা সুদে আসলে বর্তমানে ১০ লক্ষ টাকা দিতে হবে বলে দাবি করেন চাঁদাবজরা।

প্রবাসীর স্ত্রী জাহিদা বেগম বলেন, আমাদেরকে প্রায় সময় ফোনে টাকা না দিলে অপহরণ করা হবে বলে ভয় ভীতি পদর্শন করে আসছেন।

এ বিষয়ে প্রবাসী শাহআলম বলেন, দেলোয়ার হোসেন কে এই ব্যক্তিকে আমি চিনি না। মিথ্যা অভিযোগ এনে দেলোয়ার হোসেন সন্ত্রাসীদের দিয়ে ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেন। অথচ তাকে আমি চিনি না। আমি ও আমার পরিবার চাঁদাবাজদের ভয়ে নিরাপত্তা হীনতায় ভূগছি। তাই কোন উপায় অন্ত না পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছি।

চাঁদাবাজদের দেওয়া নাম্বারে যোগাযোগ করলে চাঁদপুর সদর থেকে আমিন নামে এক লোক বলেন, প্রবাসী শাহআলমের কাছ থেকে আমার নিকটতম লোক দেলোয়ার হোসেন টাকা পাবে। আমি বিষয়টি সমাধানের চেষ্টায় প্রবাসীর বাড়িতে গিয়েছি। এই বলে ফোন কেটে দেয়।

এদিকে অভিযুক্ত দেলোয়ার হোসেনের সঠিক কোন তথ্য দিতে না পারায় তার বক্তব্যে নেওয়া সম্ভব হয়নি।

প্রতিবেদক:জহিরুল ইসলাম জয়, ৬ সেপেটম্বর ২০২০

ইন্টারনেট কানেকশন নেই