Home / তথ্য প্রযুক্তি / সংবাদ জগত যেভাবে ফেইসবুকের দখলে
ফাইল ছবি: চাঁদপুর টাইমস

সংবাদ জগত যেভাবে ফেইসবুকের দখলে

কোনো ধরনের সতর্কবার্তা না দিয়ে এক রাতের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় নিউজ পেজগুলোর কার্যক্রম ব্লক করেছে ফেইসবুক। দেশটির গণমাধ্যমের কর্মীরা তাদের পেজে কোনো নিউজ শেয়ার করতে পারছেন না। সংবাদের জগতে ফেইসবুকের ক্ষমতা কতখানি সেটি এই ঘটনায় আরও স্পষ্ট হয়েছে।

সাংবাদিকতা শিক্ষার প্রতিষ্ঠান রয়টার্স ইনস্টিটিউটের একটি গবেষণা বলছে, ফেইসবুক এত ক্ষমতার মালিক হয়েছে বেশ কিছু কৌশলের আশ্রয় নিয়ে। নিজেদের প্ল্যাটফর্মে ‘একের ভেতর সব’ অফার দিয়ে আগে ব্যবহারকারী টেনেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম কোম্পানিটি। ব্যবহারকারীদের থেকে সরাসরি অর্থ না নেয়ার জনপ্রিয় কৌশল এ ক্ষেত্রে কাজে লাগিয়েছে তারা।

এসবের পাশাপাশি প্রায় প্রতি বছর অ্যালগরিদমে রহস্যজনক সব পরিবর্তন আনে তারা। অবাক করার বিষয় হলো এই পরিবর্তনগুলোর তেমন কিছুই ঘোষণা দিয়ে বোধগম্যভাবে অবহিত করা হয় না। পরিবর্তনের আগে কোনো ধরনের সতর্কবার্তাও দেয়া হয় না!

রয়টার্স ইনস্টিটিউটের রিপোর্ট বলছে, ২০১৮ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ৪০ শতাংশ অস্ট্রেলিয়ান সংবাদের জন্য ফেইসবুকের ওপর নির্ভর করেছে। এই মানুষেরা সরাসরি গুগলে সার্চ করে কোনো গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন না; বরং ফেইসবুকে ভেসে আসা লিংকে ক্লিক করে খবর পড়েন।

ফেইসবুক এবং গুগলের এত দাপটের প্রভাব বুঝতে অস্ট্রেলিয়ান বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা থেকে ২০১৮ সালে একটি তদন্তের ব্যবস্থা করা হয়।

সেই তদন্তে দেখা যায়, বিজ্ঞাপনের প্রতি ১০০ অস্ট্রেলিয়ান ডলারের ৮১ অস্ট্রেলিয়ান ডলারই নিয়ে নেয় ফেইসবুক এবং গুগল!

অর্থের এমন অসম প্রতিযোগিতা ধরতে পেরে অস্ট্রেলিয়ান সরকার ‘সমান সুযোগ’ সৃষ্টি করতে নির্দেশ দেয় কমিশনকে।

এরপর কমিশনে থেকে প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে কনটেন্টের বিপরীতে অর্থ পরিশোধের নির্দেশ দেয়া হয়। কত হারে দিতে হবে, সেটি অবশ্য ওই সময় বলা হয়নি।

ফেইসবুক অবশ্য দাবি করে, তাদের মাধ্যমে সংবাদমাধ্যম প্রতিষ্ঠানগুলো আরও বেশি উপকৃত হচ্ছে। গ্রাহক বাড়ছে। বিজ্ঞাপনের বেশি সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে।

কিন্তু অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠনকে উদ্ধৃত করে বিবিসি বলছে, ফেইসবুক যেভাবে অ্যালগরিদমে পরিবর্তন আনে তাতে তাদের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

কোন সময় কোন পোস্টের রিচ তারা কমিয়ে দেবে, সেটি বোঝা দায়। তাদের মাধ্যমে বুস্ট না করলে রিচ প্রায়ই বাড়ে না। কিছুদিন বুস্ট করে আবার থামিয়ে দিলে আগের রিচও কমে যায়!
বার্তাকক্ষ, ২০ ফেব্রুয়ারি,২০২১;