Home / উপজেলা সংবাদ / মতলব উত্তর / মতলব উত্তরে ওটারচর উবিতে মাতৃভাষা দিবস পালিত

মতলব উত্তরে ওটারচর উবিতে মাতৃভাষা দিবস পালিত

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান শহীদ দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলেক্ষে ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে নব-নির্মিত শহীদ মিনারে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ মিনারের উদ্বোধন করা হয়েছে।

“মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১” উপলক্ষ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করার মাধ্যমে ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হয়।

২১ ফেব্রুয়ারি রোববার সকাল সাড়ে ৮টায় দিবসটি উপলক্ষে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও গজরা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মোঃ হানিফ দর্জির নেতৃত্বে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি,শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে নব-নির্মিত শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করার মধ্য দিয়ে এর উদ্ধোধন করা হয়। এ সময় অমর একুশের কালজয়ী গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ বাজানো হয়।

এরপর ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র শিক্ষক মোঃ আলী আকবর মাস্টারের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলার গজরা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মোঃ হানিফ দর্জি।

প্রধান অতিথি ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ হানিফ দর্জি তার বক্তব্যে বলেন, “ভাষা শহীদরা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। তাদের অবদানের জন্যই বাংলা ভাষা রাষ্ট্র ভাষার মর্যাদা পেয়েছে এবং এরই ধারাবাহিকতায় বাংলা ভাষাকে কেন্দ্র করে ২১ শে ফেব্রেুয়ারি বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণের মাধ্যমেই ১৯৫২ সালের রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন চুড়ান্ত রূপ পায়। মহান ২১ আমাদের প্রেরণার উৎস। ৫২ এর ফেব্রæয়ারি ২১ এর ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের তাৎপর্য বর্তমান প্রজন্মকে বুকে ধারণ ও লালন করতে হবে। তবেই শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে।”

আলহাজ্ব হানিফ দর্জি আরো বলেন,বঙ্গবন্ধুর জন্যেই আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশ আত্মপ্রকাশ করবে, এ লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কাজ করে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, নতুন প্রজন্ম¥কে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবে এবং জানাতে হবে। দেশ কিভাবে স্বাধীন হয়েছে তা জানাতে হবে। আর বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম তা জানতে পারবে। বঙ্গবন্ধুর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বিশ্বের দরবারে আমরা একটি মানচিত্র পেয়েছি। যদি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হতো, তাহলে আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক হতে পারতাম না। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আমরা পেয়েছি বাংলাদেশ নামক একটি ভূখন্ড।

আলোচনা সভায় আরো বক্তৃতা করেন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি আঃ হান্নান দর্জি, গজরা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মোঃ ছানাউল্লাহ মোল্লা, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ হুমায়ন কবির, গজরা ইউপি সদস্য মোঃ নুরু মিয়া, ওটারচর সপ্রাবি এর প্রধান শিক্ষক মোঃ আশিকুজ্জামান, গজরা ইউপি সচিব মহিউদ্দিন সোহেল, মোঃ ওসমান খান, মোঃ ইব্রাহিম বিএসসি, সিনিয়র শিক্ষক মাহাবুবুর রহমান, মোঃ নুরুল আমিন ঢালী, সিদ্দিকুর রহমান, ক্রীড়া শিক্ষক গোলাম হায়দার, মোশারফ হোসেন মাস্টার, ছেংগারচর পৌর যুবলীগ নেতা মোঃ রাজিব খান প্রমূখ। এরপর ভাষা শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের হেড মাওলানা মোঃ আমিনুল হক। এছাড়াও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে হাতের লেখা ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। পরে কবিতা আবৃত্তি, রচনা প্রতিযোগিতা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

নিজস্ব প্রতিবেদক,২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১