Home / চাঁদপুর / বিনামূল্যে চাল-আলু ও অর্ধেক মূল্যে ঔষধ দিচ্ছে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন

বিনামূল্যে চাল-আলু ও অর্ধেক মূল্যে ঔষধ দিচ্ছে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে মানুষ গত ক’দিন ধরে কার্যত গৃহবন্দী। স্বল্প আয়ের মানুষগুলো খাদ্য ও নানা প্রয়োজনীয় দ্রব্যের সঙ্কটের মুখে পড়েছে। এই সঙ্কট মোকাবেলায় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান এগিয়ে এসেছেন।

তিনি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্বল্প আয়ের মানুষগুলোর মাঝে বিনামূল্যে খাদ্য সহায়তা (চাল-আলু) প্রদানের ব্যবস্থা করেছেন। এ মহতী উদ্যোগের সাথে সহযোগী হিসেবে নেয়া হয় চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতি ও চক্ষু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে।

২৯ মার্চ রোববার বিকেলে চক্ষু হাসপাতাল এবং ডায়াবেটিক হাসপাতাল প্রাঙ্গণে বিনামূল্যে চাল ও আলু বিতরণ করা হয়। একই সাথে বাজার মূল্য থেকে অর্ধেক দামে নির্বাচিত ঔষধ বিক্রি করা হয়।

জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামানসহ ডায়াবেটিক সমিতি ও চক্ষু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাগণ।
বিনামূল্যে চাল-আলু

উভয় জায়গায়ই আগ্রহীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চাল, আলু ও ঔষধ দেয়া হয়।

জেলা প্রশাসক জানান, সোমবার থেকে সারা জেলায় সরকারি-বেসরকারি সহযোগিতা ব্যাপকভাবে বাড়ানো হবে। চাঁদপুর শহরের একাধিক স্থানে ৫ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি হবে। সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তি পর্যায়ে অনেকে সততা স্টোর চালু করবেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চাঁদপুর শহরের ৪টি হোটেলে গরীব মানুষকে ফ্রি খাওয়ানো হবে। তাছাড়া পর্যাপ্ত চাল মজুদ আছে। আশা করি, মানুষের কোনো খাদ্য সমস্যা হবে না।

এদিকে জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খানের উদ্যোগে চালু হওয়া সততা স্টোর জনপ্রিয়তা পেয়েছে। জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এখানে চাল, ডাল, পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ন্যায্য মূল্যে বিক্রি করা হয়। গত কয়েক দিন আগে এই কার্যক্রমটি চালু করেছেন জেলা প্রশাসক। দেখা যাচ্ছে যে, প্রতিদিন কয়েক শ’ মানুষ এখান থেকে চাল, ডাল, আটা, লবণ, পেঁয়াজ ও তেলসহ নিত্যপণ্য ন্যায্য মূল্যে ক্রয় করে নিচ্ছে। আর যারা আসছে তারা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছে।

স্বল্প আয়ের মানুষগুলো বর্তমান পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসকের এমন উদ্যোগে মহাখুশি। তারা এর জন্যে জেলা প্রশাসককে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ৩০ মার্চ ২০২০