Home / সারাদেশ / মোবাইলে বিয়ে অতঃপর বালিকাবধূর আত্মহত্যা

মোবাইলে বিয়ে অতঃপর বালিকাবধূর আত্মহত্যা

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে মোবাইল ফোনে মালদ্বীপপ্রবাসীর সাথে বিয়ের তিন মাসের মাথায় শ্বশুর বাড়িতে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করেছেন আছিয়া খাতুন (১৬) নামে এক বালিকাবধূ।

আজ রবিবার ভোর রাতে উপজেলার পাগলা থানাধীন টাঙ্গাব ইউনিয়নের দক্ষিণ টাঙ্গাব গ্রামে। খবর পেয়ে পাগলা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাগলা থানাধিন টাঙ্গাব ইউনিয়নের দক্ষিণ টাঙ্গাব গ্রামের আবু সাঈদ পরিবার নিয়ে ঢাকায় বসবাস করেন। তবে মেয়ে আছিয়া খাতুন একই গ্রামে নানার বাড়িতে থেকে স্থানীয় জামির হাজি দাখিল মাদরাসায় নবম শ্রেণিতে পড়ে। তিন মাস পূর্বে প্রতিবেশী আব্দুর রশিদের ছেলে মালদ্বীপপ্রবাসী আশরাফুল ইসলামের (২৮) সাথে পারিবারিকভাবে মোবাইল ফোনে আছিয়ার বিয়ে দেন। শনিবার আশরাফুলের পরিবারের লোকজন আছিয়া খাতুনকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যান। শনিবার দিবাগত ভোররাতে আছিয়া ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়ানা বেঁধে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করে। সকালে বাড়ির লোকজন এসে অজ্ঞান অবস্থায় আছিয়াকে নিচে নামায়। খবর পেয়ে পাগলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

পাগলা থানার ওসি শাহীনুজ্জামান খান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বার্তাকক্ষ, ২০ সেপ্টেম্বর,২০২০;

ইন্টারনেট কানেকশন নেই