Home / উপজেলা সংবাদ / ফরিদগঞ্জ / ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কে অর্ধ-কোটি টাকার গাছ হরিলুট : আটক ১
Tree Horulut
প্রতীকী ছবি

ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কে অর্ধ-কোটি টাকার গাছ হরিলুট : আটক ১

চাঁদপুর জেলা স’মিল মালিক সমিতির সভাপতি ও ফরিদগঞ্জ যুবদলের যুগ্ম- আহ্বায়ক মো.নাছির উদ্দিন হাজী এবং তার এক সহযোগীর বিরুদ্ধে ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কে টেন্ডার বর্হিভূত শতাধিক রেইন ট্রি (গাছ) কেটে হরিলুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় শনিবার (৪ আগস্ট) ফরিদগঞ্জ উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. কামরুল হাছান বাদী হয়ে নাছির উদ্দিন হাজী ও মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে টেন্ডার বহির্ভুতভাবে গাছ কর্তনের অভিযোগে ফরিদগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়ের পর আসামী মিজানুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ।

এছাড়া মামলার প্রধান আসামী নাছির উদ্দিন হাজী পলাতক রয়েছে। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই ফারুক।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা (ভারপ্রাপ্ত) বন কর্মকর্তা কামরুল হাছান চাঁদপুর টাইমসকে বলেন, ‘ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কের চুরা কামিনি পুল হতে মৌলভী বাজার (বর্ডার বাজার) পর্যন্ত ১৯৯৩-৯৪ সালে সালে ৪ কি.মি. সড়কে বাগান সৃজন করা হয়। সড়ক ও জনপদ বিভাগ চাঁদপুর ২২ /চাঁদ অব ২০১৭-১৮ এর ৬০১ হতে ৭০০ পর্যন্ত ও ২৩ /চাঁদ ২০১৭-১৮ এর ১’শ এবং ৭০১ হতে ৭৭২ এর ৭২টি করে ১শ’৭২টি গাছ রয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘গাছগুলো চলতি মাসের ৮ আগস্ট টেন্ডার হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু টেন্ডারের পূর্বেই প্রায় শতাধিক গাছ কেটে নিয়ে গেছেন নাছির উদ্দিন হাজী ও মিজানুর রহমান নামে দু’ব্যক্তি। গাছ লুটের ঘটনায় আমি নিজে বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে পুলিশ একজনকে আটক করেছে।’

এ বিষয়ে জেলা বন কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম চাঁদপুর টাইমসকে বলেন, ‘গাছ কর্তনকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ একজনকে আটক করেছে’।

থানা অফিসার ইনচার্জ মো.শাহ আলম একজনকে আটক ও মামলা দায়ের বিষয় নিশ্চিত করে চাঁদপুর টাইমসকে বলেন, ‘অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’
এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চাঁদপুর টাইমসকে বলেন, ‘টেন্ডার বহির্ভুতভাবে যদি কেউ গাছ কেটে থাকে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা হবে।’

এদিকে স্থানীয়রা চাঁদপুর টাইমসকে জানান, ‘সাম্প্রতিক সময়ে নাছির উদ্দিন হাজীর সাথে সরকার দলীয় পদধারী ক’জন নেতার ছবি নিয়ে ফেইজবুকে আলোচনা-সমালোচনা হয়। এছাড়া নেতাদের সাথে সক্ষতা তৈরি হয়। অবৈধভাবে সরকারি গাছ কাটার জন্যেই নাছির উদ্দিন হাজী এ সর্ম্পক গড়ে তুলেছিলেন নেতাদের সাথে। এরপূর্বেও নাছির উদ্দিন হাজীর বিরুদ্ধে ফরিদগঞ্জ-রূপসা সড়কে টেন্ডার বহির্ভুত গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে।’

গাছ কর্তনের কথা স্বীকার করে এ বিষয়ে নাছির উদ্দিন হাজী এ প্রতিনিধিকে বলেন, ‘নিয়মতান্ত্রিকভাবে টেন্ডারের মাধ্যমে ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কের গাছ আমি পেয়েছি এবং টেন্ডারের সকল কাগজপত্র আমার কাছে আছে । আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ আনা হয়েছে।’

প্রতিবেদক : আতাউর রহমান সোহাগ

Leave a Reply