Home / উপজেলা সংবাদ / ফরিদগঞ্জ / ফরিদগঞ্জে ক্ষমতার দাপটে ড্রেজারে মাটি উত্তোলনের অভিযোগ

ফরিদগঞ্জে ক্ষমতার দাপটে ড্রেজারে মাটি উত্তোলনের অভিযোগ

একদিকে মাছ চাষের জলাশয় তার পাশেই রয়েছে ডাকাতিয়া নদী। নদীর পাশেই আবার চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী কালিরবাজার। এরই মধ্যে সরকারি অনুমতি ছাড়াই ক্ষমতার দাপটে ডাকাতিয়া নদীতে ড্রেজার লাগিয়ে ৪দিন দরে অবৈধ ভাবে মাটি তোলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আর এ মাটি তুলছে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি তুহিন রায়হান। তবে তুহিন রায়হান দাবি করছে সে সরকারি ভূমি অফিস থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়ে মাটি কাটছি।

স্থানীয়রা জানায়,ঐতিয্যবাহী কালির বাজারের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া ডাকাতিয়া নদী। গত ৪ দিন থেকে যুবলীগের নেতা রায়হার তুহিন ওই নদীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধ ভাবে মাটি তুলে তুহিনের জায়গা ভরাট করছে। এমন অবস্থা দেখে এলাকার লোকজন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলছে যেই ভাবে সরকারি নদী থেকে ড্রেজারের মাধ্যমে মাটি তোলা হচ্ছে। এতে করে নদীর দুই পাশ ধসে পড়ার আশংকা করছে স্থানীয় লোকজন।

১৯ জানুয়ারি রোববার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,একপাশে মাছ চাষের জন্য রয়েছে জলাশয়। তারই পাশে কালির বাজারের পাশেই বয়ে যাওয়া ডাকাতিয়া নদীতে রয়েছে জাকির হোসেনের ড্রেজার মেশিন। মেশিন থেকে লম্বা পাইপ স্থাপন করে নেয়া হয়েছে তুহিনের দোকানের পেছণের জায়গায়।

এ নিয়ে কথা হয় ড্রেজারের মালিক বিরামপুর এলাকার জাকিরের সাথে। সে জানায়,প্রশাসন থেকে নাকি তুহিন অনুমতি নিয়েছে। যার ফলে আমি ড্রেজার লাগিয়ে মাটি উত্তোলন করছি।

যুবলীগ নেতা তুহিন রায়হান বলেন,আমার দোকানের পেছনের জায়গায় সরকারি ভাবে একটি ঘর নির্মাণ করা হবে। সে জন্য আমি ভূমী অফিস থেকে মৌখিক অনুমিতি নিয়ে ড্রেইজার দিয়ে মাটি কাটছি। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তুহিন আরো বলেন, গত ৪ দিন ড্রেজার দিয়ে আশানুরূপ মাটি পাওয়া না যাওয়ায় ড্রেজার আজ বন্ধ করে দেবো।

ফরিদগঞ্জ ১৪নং দক্ষিনের ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন রিপন বলেন,কালির বাজারের পাশে ডাকাতিয়া নদী থেকে ড্রেজার দিয়ে মাটি উত্তোলনের বিষয়টি আমার জানা নেই।

এ নিয়ে সহকারী কমিশনার শারমিন আক্তার (ভূমি) চাঁদপুর টাইমসকে বলেন, কালিবাজারের পাশে ডাকাতিয়া নদী থেকে অবৈধ ভাবে মাটি তোলার বিষয়টি জেনে আমি সেখানে তহশিলদার পাঠিয়ে ওই ড্রেজার সরানো হয়েছে বলে আমাকে নিশ্চিত করেছে।

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ১৯ জানুয়ারি ২০২০