Home / তথ্য প্রযুক্তি / প্রতি সেকেন্ডে ২০ গিগাবাইট তথ্য লেনদেন

প্রতি সেকেন্ডে ২০ গিগাবাইট তথ্য লেনদেন

‎Saturday, ‎June ‎27, ‎2015 11:52:45 PM

চাঁদপুর টাইমস তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক:

বিশ্বব্যাপী মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা সময়ের সাথে উন্নত হচ্ছে। প্রতিনিয়ত পরবর্তী প্রজন্মের নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা বা আলোচনা চলছে। আর এরই ধারাবাহিকতায় টুজি, থ্রিজির পর বিশ্বব্যাপী ফোরজি সফলতার সাথে নিজের অবস্থান জানান দিচ্ছে। ফোরজির পর ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিইউ) ফাইভজি নেটওয়ার্ক ব্যবস্থার মূল বৈশিষ্ট্য ও এর মাধ্যমে সেবার গতি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা পেতে কাজ শুরু করেছিল। সম্প্রতি তারা যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত এক সম্মেলনে ফাইভজির নেটওয়ার্কের অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা করে। এ সম্মেলনেই জানানো হয় ফাইভজি নেটওয়ার্ক ব্যবস্থায় প্রতি সেকেন্ডে ২০ গিগাবাইট পর্যন্ত তথ্য লেনদেন করা যাবে। ২০২০ সালে ফাইভজি নেটওয়ার্ক সেবাটি চালু সম্ভব হতে পারে। তবে আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে ফাইভজি নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা।

অনেকেই এ নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা চালুর বিষয়ে আশাবাদী। কিন্তু নতুন নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা গ্রাহক সেবায় কী পার্থক্য আনবে, তা-ই মূল প্রতিপাদ্য হয়ে দেখা দিয়েছে। এ কারণে ব্যবস্থাটির মানদণ্ড নির্ধারণ নিয়ে চলছে আলোচনা। ফাইভজি নেটওয়ার্কের মানদণ্ড কী হবে, সে বিষয়ে একটি বিশেষ কর্মসূচি চালু করে আইটিইউ। এ কর্মসূচির মাধ্যমে ফাইভজির মানদণ্ড নির্ধারণের পাশাপাশি নির্দিষ্ট মানে পৌঁছতে প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গও নির্ধারণ নিয়ে কাজ চলছে।

আইটিইউর মহাসচিব হুলিন ঝাও জানান, আপাতত ফাইভজি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এক বর্গকিলোমিটার এলাকার মধ্যে ১০ লাখ ইন্টারনেট অব থিংস বা ইন্টারনেট সংশ্লিষ্ট ডিভাইসে প্রতি সেকেন্ডে ১০০ মেগাবাইট গতির ইন্টারনেট সেবা সরবরাহ করা সম্ভব হবে। থ্রিজি বা ফোরজি নেটওয়ার্ক নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে সেবা সরবরাহ করছে।

ফাইভজি নেটওয়ার্ক ভয়েজ ও ভিডিওর পাশাপাশি স্বাস্থ্য, ইন্ডাস্ট্রিয়াল অটোমেশন, ভার্চুয়াল রিয়েলিটি, চালকবিহীন গাড়ি ও রোবটিক সিস্টেম নিয়ন্ত্রণের মতো কাজে ব্যবহার হবে বলে মনে করছেন গবেষকেরা।

এ কারণে থ্রিজি বা ফোরজির পাশাপাশি ফাইভজি নিয়ে আলোচনা গুরুত্ব পাচ্ছে সর্বত্র। ফাইভজি সেবার পরিধি বড় হওয়ার কারণে এ নিয়ে আগে থেকেই ধারণা থাকা উচিত ছিল বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা। ফাইভজি নেটওয়ার্ক বিশ্বব্যাপী যোগাযোগ ব্যবস্থায় বড় ধরনের পরিবর্তন আনবে।

চাঁদপুর টাইমস : ডেস্ক/ডিএইচ/২০১৫।

চাঁদপুর টাইমস প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না