Home / আন্তর্জাতিক / পৃথিবীর সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী কে এই সানা মারিন

পৃথিবীর সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী কে এই সানা মারিন

৩৪ বছয় বয়সী সানা মারিন দেশটির পরিবহণ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন এতদিন। এবার তিনি তার দল সোস্যাল ডেমেক্র্যাটিক পার্টির প্রধান নির্বাচিত হয়েছে। যার ফলে নিয়ম অনুযায়ী তিনিই হবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

৮ ডিসেম্বর রোববার এক ভোটাভুটিতে দলীয় প্রধান নির্বাচিত হন সানা। বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী অ্যান্তি রিনের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন তিনি। এর আগে গত মঙ্গলবার পার্লামেন্টে আস্থা ভোটে হেরে পদত্যাগ করেন অ্যান্তি রিনে।

রোববার রাতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সানা বলেন, পুনরায় বিশ্বাস অর্জনের জন্য আমাদের একত্রে অনেক কাজ করতে হবে। তিনি আরও বলেন, আমি কখনও কাজের ক্ষেত্রে আমার বয়স বা আমি মেয়ে নাকি ছেলে তা নিয়ে ভাবিনি।

৩৪ বছর বয়সী সানার আগে ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী ওলেসি হংচারুক ছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে কনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী। বর্তমানে তার বয়স ৩৫ বছর। চলতি বছরের আগস্টে ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি।

সানা মিরেলা মারিন হলেন একজন ফিনীয় রাজনীতিবিদ। সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট দলের সদস্য মারিন ২০১৫ সাল থেকে ফিনল্যান্ডের সংসদে অধিষ্ঠিত এবং ২০১৯ সালের ৬ই জুন থেকে দেশটির পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আন্টি রিনে তার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ালে ফিনল্যান্ডের সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি মারিনকে ২০১৯ সালের ৮ই ডিসেম্বর তাদের নতুন প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেন। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পেলে তিনি হবেন বর্তমান বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী এবং ফিনল্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ ও তৃতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী।

মেরিন হেলসিঙ্কিতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এবং টাম্পেরে যাওয়ার আগে এস্পু এবং পিরক্কালায় থাকতেন। তিনি ২০১২ সালে টাম্পের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রশাসনিক বিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

সানা ২০১২ সালে, তিনি টাম্পেরের সিটি কাউন্সিলের নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ২০১৩ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত সিটি কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ছিলেন। ২০১৭ সালে, তিনি সিটি কাউন্সিলের পুনর্নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি টাম্পের অঞ্চল কাউন্সিলের অ্যাসেমব্লির সদস্যও।

সানা ২০১৪ সালে সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির দ্বিতীয় উপ-সভাপতির পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১৫ সালে, তিনি পিরকান্মার নির্বাচনী জেলা থেকে ফিনল্যান্ডের সংসদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। চার বছর পরে, তিনি আবার নির্বাচিত হন । ৬ জুন ২০১৯-তে তিনি পরিবহন ও যোগাযোগমন্ত্রী হন।

সানা মারিন সমকামী পিতামাতার সন্তান। সানার দীর্ঘদিনের সঙ্গী মার্কাস রিক্কানেনের সাথে তার একটি সন্তান রয়েছে।

বার্তা কক্ষ, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

ইন্টারনেট কানেকশন নেই