Home / উপজেলা সংবাদ / মতলব দক্ষিণ / মতলব দক্ষিণে নির্বাচনের একদিন আগে বয়কট করলেন বিএনপি প্রার্থী শুক্কুর

মতলব দক্ষিণে নির্বাচনের একদিন আগে বয়কট করলেন বিএনপি প্রার্থী শুক্কুর

চাঁদপুরে মতলব দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচন বয়কট করলেন বিএনপি’র মনোনীত পদ প্রার্থী এম.এ শুক্কুর পাটোয়ারী। ১৮ অক্টোবর, রোববার রাত ৮টায় মো.আবদুস শুক্কুর পাটোয়ারীর সাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে বিষয়টি জানা যায়।

এছাড়া ওনার মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি বয়কটের বিষয়টি চাঁদপুর টাইমসকে নিশ্চিত করেন।

এদিকে মতলব দক্ষিণ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের আর মাত্র ১ দিন বাকি। ২০ অক্টোবর,মঙ্গলবার এই উপজেলার উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার সকল প্রস্ততি সম্পন্ন করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিস।

মো. আবদুস শুক্কুর পাটোয়ারীর সাক্ষরিত এক পত্রে উল্লেখ করেন-এবারের নির্বাচন গণতন্ত্র পূণরুদ্ধারে আমার বিবেচনায় একটি গুরুত্বপূর্ণ উপ-নির্বাচন। কিন্তু আমরা প্রত্যক্ষ করলাম নৌকা মার্কার প্রতীকে বিজয়ী ঘোষণা করার জন্য সরকার দলীয় আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মতলব দক্ষিণ উপজেলার প্রতিটি কেন্দ্রে রাজত্ব কায়েম করছে।

প্রতিদিন আমার নেতা-কর্মীদের হুমকি-ধমকি-অশ্রাব্য গালাগাল,এলাকা ছাড়ার হুমকি, নির্বাচনী কর্মকান্ডে বাধা প্রদানসহ বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নের্তা-কর্মীদের ঘর-বাড়ি,এলাকা ছাড়ার হুমকি প্রদান করা হচ্ছে, যা মোটেই কাম্য নয়।

এমতাবস্থায় নেতা-কর্মীদের ভয়-ভীতি দূর করা অব্যাহত হুমকি-ধমকি, হামলা-মামলা, জান-মালের ক্ষয়ক্ষতি থেকে ধানের শীষের কর্মী সমর্থকদের রক্ষা করার জন্য আমার দলীয় সিনিয়র নেতা-কর্মীদের পরামর্শ অনুযায়ী এই একতরফা প্রহশনের নির্বাচন বয়কট করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলাম।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা রিটার্নিং অফিসার মোজাম্মেল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিএনপি মনোনিত প্রার্থী তাঁর দলীয় নেতাকর্মীদের হুমকি ও নির্বাচনী কাজে বাধা প্রদানের বিষয়ে কোনো অভিযোগ আমরা পাইনি। এখন পর্যন্ত নির্বাচনী পরিবেশ সুন্দর রয়েছে এবং আগামী ২০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার বিষয়ে সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচন বয়কটের প্রসঙ্গে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনার আহবায়ক দেওয়ান রেজাউল করিম বলেন, প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে বিএনপি ও তার সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের কোনো নেতাকর্মীকে মাঠে প্রচার প্রচারণা চালাতে দেখা যায়নি। এমনকি যিনি প্রার্থী তিনিও নির্বাচনী এলাকায় আসেন নি। বিএনপি একটি রাজনৈতিক দেউলিয়া দল। তারা উপ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য মনগড়া তথ্য দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বয়কট করছে। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের বিরুদ্ধে যে সকল অভিযোগ এনে নির্বাচন বয়কট করেছেন আমি তার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। আমার বিশ্বাস মতলব দক্ষিণ উপজেলার মানুষ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার পক্ষে আগামী ২০ অক্টোবর নির্বাচনে নৌকা মার্কা কে বিপুল ভোটে জয়ী করবে, ইনশাল্লাহ।

বিএনপির প্রার্থী নির্বাচন বয়কট বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ জানান, উপ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে যিনি বিএনপির প্রার্থী হয়েছেন, তিনি তার নিজ দলের অন্ত কোন্দলের শিকারের ভয়ে নির্বাচনী এলাকায় আজও পর্যন্ত আসেননি।

মতলবের বিএনপি রাজনৈতিক ভাবে তিনটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়ে রয়েছে। আর যিনি প্রার্থী হয়েছেন তিনি এক গ্রুপ ছেড়ে অন্য গ্রুপে যোগদান করেছেন। দলীয় গ্রুপিংয়ের কারণেই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে কৌশল হিসেবে কয়েকদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। নিজেদের দলের গ্রুপিং ও রাজনৈতিক দেউলিয়া বিষয়টি স্বীকার না করেই তারা আওয়ামী লীগকে দোষারোপ করছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

প্রতিবেদক:মাহফুজ মল্লিক,১৮ অক্টোবর ২০২০

ইন্টারনেট কানেকশন নেই