Home / উপজেলা সংবাদ / ফরিদগঞ্জ / দেশে করোনা কিলার পোষাক বাজারে আনলেন ফরিদগঞ্জের কৃতি সন্তান টুটুল

দেশে করোনা কিলার পোষাক বাজারে আনলেন ফরিদগঞ্জের কৃতি সন্তান টুটুল

‘প্রতিদিনের জীবনে ফিরে আসুন’ এই স্লোগানে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো করোনা কিলার পোষাক/কাপড় বাজারে এনেছে রুট গ্রুপ। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, সুরক্ষামূলক এই বিশেষ পোষাকের সংস্পর্শে আসার ১২০ সেকেন্ডের (২ মিনিট) মধ্যে করোনাসহ যে কোনো ধরণের ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া নির্মুল হয়ে যাবে।

চিকিৎসক, বিজ্ঞানী ও গবেষকরা আশা করছেন, এর সফল প্রয়োগে সারা বিশ্বে বাংলাদেশের পোষাক শিল্পে নতুন বিপ্লব ঘটবে। সুইজারল্যান্ডের টেকনোলজিতে চট্টগ্রাম ভেটেনারি এন্ড এনিমেল সাইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগারে গবেষণার মাধ্যমে এই বিশেষ পোষাক উদ্ভাবিত হয়েছে।

করোনা কিলার দ্বারা উৎপাদিত পণ্যগুলি হলো : মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, পিপিই, বেডশিট, মেডিক্যাল বেডশিট, টি-শার্ট, কটন শার্ট, পোলো শার্ট, টুইল ও ডেনিম ট্রাউজার, বুটকভার, ওভেন গাউন, নন ওভেন গাউন, হেন্ড কভারসহ অসংখ্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী।

বিশ্ববিখ্যাত সুইস টেকনোলজির সহায়তায় বাংলাদেশে রুট গ্রুপ নিয়ে এসেছে করোনা কিলার এই পার্সোনাল প্রটেক্টিভ টেক্সটাইল এন্ড অ্যাপারেলস সামগ্রী। চট্টগ্রাম ভেটেনারি এন্ড এনিমেল সাইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগারে গবেষণায় প্রমাণিত এই করোনা কিলার সামগ্রীর সংস্পর্শে আসা মাত্র ১২০ সেকেন্ডে ৯৯.৯০ শতাংশ করোনা ভাইরাসসহ অন্যান্য ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া নির্মূল হয়।

ফলে উক্ত সামগ্রী ব্যাবহারকারী নিজেকে এবং অন্যকে মরণঘাতি করোনার সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে পারবেন। ৩ জুলাই শুক্রবার বিকেলে ঢাকার বনানীতে আনুষ্ঠানিকভাবে এই পোষাক বিপণন কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সরাসরি ও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পোষাকটির সাথে সম্পৃক্ত বিজ্ঞানী, গবেষকসহ দেশের খ্যাতনামা চিকিৎসক, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, অণুজীব বিজ্ঞানী, গবেষকরা অংশগ্রহণ করেন।

রুট গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাজ্জাকুল হোসেন টুটুল চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা পূর্ব ইউনিয়নের কৃতি সন্তান। তিনি দীর্ঘদিন তৈরী পোষাক শিল্পসহ বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, করোনা কিলার দ্বারা উৎপাদিত প্রতিটি পণ্য পুনঃব্যবহারযোগ্য যা ২০টি ওয়াশ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসসহ সকল ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া নির্মূল করে। এই সুইস টেকনোলজিটি আইএসও ১৮১৮৪ স্ট্যান্ডার্ড। পোষাকটি বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে উদ্যোক্তার।

করেসপন্ডেট,৩ জুলাই ২০২০

ইন্টারনেট কানেকশন নেই