Home / উপজেলা সংবাদ / মতলব উত্তর / ছেংগারচর সরকারি ডিগ্রি কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

ছেংগারচর সরকারি ডিগ্রি কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর সরকারি ডিগ্রি কলেজের উদ্যোগে যথাযথ মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন, আলোচনা সভা, মিলাদ মাহফিল ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।

রোববার সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের “ঐতিহাসিক ৭ মার্চ” জাতীয় দিবস উপলক্ষে উপজেলার ছেংগারচর সরকারি ডিগ্রি কলেজের অডিটোরিয়ামে “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রদত্ত ৭ মােের্চর ভাষণের উপর আলোচনা” অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ছেংগারচর সরকারি ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হোসাইন মোঃ ইয়াছিন ঢালী। এতে সভাপতিত্ব করেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও দিবসটি উদযাপন কমিটি আহবায়ক মোঃ আলম খান।
ক্রীড়া শিক্ষক একে আজাদ এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, কলেজের সিনিয়র প্রভাষক মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ সরকার, মোঃ কামরুন হাসান, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিপ্লবী মনিরুজ্জামান, প্রভাষক মোঃ কামরুল ইসলাম, মোঃ শাহাবুদ্দিন প্রমূখ। এসময় কলেজের অন্যান্য শিক্ষক ও অন্যান্য কর্মকর্তা,কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। সিনিয়র প্রভাষক হাবিবুর রহমান পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন। মিলাদ মাহফিল ও দোয়ার অনুষ্ঠানে মোনাজাত পরিচালনা করেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক মাকবুল আহমেদ।

ছেংগারচর সরকারি ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হোসাইন মোঃ ইয়াছিন ঢালী বলেন, ৭ই মার্চ ভাষণ বাঙ্গালি জাতির মুক্তির মহাকাব্য। জাতির পিতার এই মহাকাব্যের জন্যই আমরা আজ স্বাধীন। ভাষা আন্দোলন থেকেই আমাদের স্বাধীনতার গোড়া পত্তন হয়। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে জয়লাভ করার পরও জাতির পিতার নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর না করে টালবাহানা শুরু করা হয়। ফলে আন্দোলন আরও বেগবান হয়। উত্তাল মার্চের আন্দোলন কর্মসূচীর ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ প্রদান করেন যা আজ বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আরো বলেন, “৭ মার্চের ভাষণে এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, বঙ্গবন্ধুর এই বক্তব্যের মাধ্যামে স্বাধীনতা যুদ্ধের দিক নির্দেশনা রয়েছে এবং এই ভাষণের মাধ্যমেই বাঙ্গালী জাতি উজ্জীবিত হয়ে দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিশ্বের দরবারে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের অভ্যূদয় ঘটে” ।

উক্ত অনুষ্ঠানে সকল শিক্ষক কর্মচারী স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপস্থিত ছিলেন এবং শিক্ষার্থীরা অনলাইনে সংযুক্ত ছিলো। “ঐতহিাসকি ৭ র্মাচ দবিস” উদ্যাপন উপলক্ষ্যে ৬ ও ৭ মার্চ ২০২১ কলেজ ক্যাম্পাসে আলোকসজ্জা করা হয়।
ছবি-ই-মেইলে দেওয়া আছে

নিজস্ব প্রতিবেদক,৭ মার্চ ২০২১