Home / সারাদেশ / লঞ্চ চালকের দক্ষতায় প্রাণে বাঁচলো ৫ শতাধিক যাত্রী

লঞ্চ চালকের দক্ষতায় প্রাণে বাঁচলো ৫ শতাধিক যাত্রী

পটুয়াখালী-ঢাকা নৌ-রুটের বিলাসবহুল ‘কুয়াকাটা-১’ লঞ্চটি দুর্ঘটনার কবলে পড়লেও চালকের দক্ষতায় প্রাণে বেঁচে গেছেন লঞ্চের পাঁচ শতাধিক যাত্রী। শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) ওই লঞ্চের সকল যাত্রীদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে আরেকটি লঞ্চ।

যাত্রীরা জানায়, ২১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার  ঢাকা থেকে পটুয়াখালীর উদ্দেশে ছেড়ে আসা দোতলা লঞ্চটির সঙ্গে বালুভর্তি বলগেটের ধাক্কা লাগে। এতে লঞ্চটির তলা ফেটে যায়। চাঁদপুরের কাছে মেঘনা নদীতে রাত ১০টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে চালক লঞ্চটিকে দ্রুত নদীর চরে তুলে দিলে প্রাণে বেঁচে যায় যাত্রীরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পটুয়াখালী নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক খাজা সাদিকুর রহমান বলেন, ‘দুর্ঘটনা কবলিত লঞ্চের সকল যাত্রীদের উদ্ধার করে মর্নিংসান-৫ নামের আরেকটি লঞ্চ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে পটুয়াখালীর উদ্দেশে রওনা হয়। বিকাল ৩টার দিকে লঞ্চটি পটুয়াখালী পৌঁছায়।’

আরও পড়ুন : চাঁদপুরে মোহনায় ডুব‌তে যাওয়া জাহাজের ৩ আরোহী প্রাণে বেঁচে গেলো

ওই লঞ্চের যাত্রী মো. সেলিম মিয়া জানায়, লঞ্চটি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকার সদরঘাট থেকে পটুয়াখালীর উদ্দেশে ছেড়ে আসে। রাত আনুমানিক ১০টার দিকে বালুভর্তি বলগেটের সঙ্গে সজোরে ধাক্কা খায় লঞ্চটি। এতে লঞ্চটির তলার কিছু অংশ ফেটে লঞ্চের মধ্যে পানি প্রবেশ করতে থাকে। এই সময় যাত্রীরা আকঙ্কিত হয়ে পড়েন। চালক দ্রুত লঞ্চটি নদীর চরে তুলে দিলে যাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে। সারারাত লঞ্চটি সেখানে অবস্থান করে।

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ২২ জানুয়ারি ২০২১