Home / কৃষি ও গবাদি / বছরের প্রথম দিন থেকেই পানি পাচ্ছেন মতলবের বোরো চাষিরা
Boro-chas

বছরের প্রথম দিন থেকেই পানি পাচ্ছেন মতলবের বোরো চাষিরা

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সেচ প্রকল্প মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের ২০১৯ সালের সেচ প্রকল্পের সেচের পানি ছাড়া কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের সেচ বছরের প্রথম দিন উদ্বোধন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১ জানুয়ারি) মতলব উত্তর উপজেলার উদামদী পাম্প হাউসে সকাল ১১টায় এবং বেলা ১টার সময় উপজেলার কালিপুর পাম্প হাউজে মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প পানি ব্যবস্থাপনা এসোসিয়েশনের উদ্যোগে এ সেচ পানি ছাড়া কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পানি ব্যবস্থপনা ফেডারেশনের সভাপতি, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প পানি ব্যবস্থাপনা এসোসিয়েশনের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প পানি ব্যবস্থাপনা এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন সরকারের পরিচালনায় সেচ প্রকল্পের সেচের পানি ছাড়া কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জাকির হোসেন।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী (মেকানিক্যাল) রুহুল আমিন, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী (এসডি) নকিব আল হাসান, শাখা কর্মকর্তা সালাউদ্দিন, জামাল হোসেন ও আতিকুর রহমান। এ সময় প্রকল্পের বিভিন্ন কর্মকর্তাসহ পানি ব্যবস্থাপনা এসোসিয়েশন ও সমিতির কর্মকর্তাবৃন্দসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। দু’স্থানেই দেশের সমৃদ্ধি কামনায় এবং মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পে কৃষকদের কাঙিখত সোনার ফসর ঘরে তুলে যেন এর সেচ প্রকল্পের সুফল শতভাগ ভোগ করতে পারে সেজন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ পানি ব্যবস্থপনা ফেডারেশনের সভাপতি, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প পানি ব্যবস্থাপনা এসোসিয়েশনের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস। এসময় তিনি বলেন, মতলবের ৫ লক্ষ মানুষের আশা-আকাঙ্খা এ সেচ প্রকল্প। প্রকল্পের কৃষকদের চাহিদানুযায়ী সেচের পানি সরবরাহ করাই আমাদের মুল লক্ষ্য। সুষ্ঠু ও নির্বিচ্ছিন্ন সেচের পানি দেয়ার লক্ষ্যেই সর্বদা মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প কর্তৃপক্ষ কাজ করে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাকির হোসেন। এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাকির হোসেন বলেন, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প দেশের অন্যতম সেচ প্রকল্প। এ প্রকল্প বাচিঁয়ে রাখার দায়িত্ব আমাদেরই। তাই এ প্রকল্পে আওতায় যে আবাদি জমিগুলো আছে, তা বাড়ি করে নষ্ট না করে চাষ করতে হবে। কারণ সরকার এ প্রকল্পের আবাদি জমি বাঁচিয়ে রাখার দায়িত্ব আমাদেরই।

তাহলে এ উপজেলায় আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হবো। তিনি আরো বলেন, বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার দেশে কৃষি উন্নয়ন করার জন্য সকলপ্রকার পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। এরই একটি পানি ব্যবস্থাপনা। বছরের প্রথম দিন শুধু আওয়ামী লীগ সরকারই কৃষকদের পানি দিয়েছে। এদিকে বছরের প্রথম দিন থেকেই পানি পাচ্ছেন মেঘনা-ধনাগোধা সেচ প্রকল্পের বোরো মৌসুমের কৃষকরা। বছরের শুরুতেই পানি ছাড়ায় তারা মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের সকল কর্মকর্তা ও সেচ প্রকল্প পানি ব্যবস্থাপনা এসোসিয়েশনের কমিটির সভাপতি,সাধারণ সম্পাদকসহ সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

b> খান মোহাম্মদ কামাল
১ জানুয়ারি, ২০১৯