Home / চাঁদপুর / চাঁদপুরে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার নিয়ে বিভিন্ন মসজিদ কমিটির টাল বাহানা

চাঁদপুরে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার নিয়ে বিভিন্ন মসজিদ কমিটির টাল বাহানা

মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমন পরিস্থিতিতে আর্থিক অস্বচ্ছলতা দুরীকরনে চাঁদপুর জেলার মসজিদ সমূহের অনুকুলে বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিনদের মাঝে প্রধান মন্ত্রীর দেয়া উপহার (অনুদান) নিয়ে বিভিন্ন মসজিদ কমিটি টালবাহানা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে করে প্রধানন্ত্রীর এমন অনুদান থেকে বঞ্চিত হয়েছেন বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিনগন। চাকরি থেকে বঞ্চিত হওয়ার ভয়ে ভুক্তভোগী অনেক ইমাম, মুয়াজ্জিনগন চাপা কষ্ট বুকে চেপে ধরে রেখেছেন।

জানা যায়, গত ২৭ মে বুধবার বিকেলে চাঁদপুর জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে চাঁদপুর স্টেডিয়ামের ভিআইপি প্যাভেলিয়নে প্রধান অতিথি হিসেবে বিভিন্ন মসজিদের ইমাম মুয়াজ্জিন ও মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দের হাতে এ অনুদান প্রদান করেন।

ওইদিন সর্ব প্রথম চাঁদপুরের মোট ১২০ টি মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনের মাঝে ৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হয়। এসময় চাঁদপুর শহরের বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকগন উপস্থিত হয়ে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খানের হাত থেকে এই অনুদান গ্রহন করেন। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে একই ভাবে চাঁদপুর জেলার মসজিদ সমূহের অনুকুলে থাকা বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও কমিটির নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে ইমাম, মুয়াজ্জিনদের মাঝেও এই অনুদান বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।

কিন্তু খবর নিয়ে জানাযায়, চাঁদপুর শহরের মিশন রোড, উত্তর গুনরাজদী, খান সড়ক, পশ্চিম মৈশাদী, ও বঙ্গবন্ধু সড়কের দুটি মসজিদ সহ বেশ কয়েকটি মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিনরা সেই অনুদান পায়নি। এসব এলাকা সহ বেশ কয়েকটি এলাকার মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সাথে কথা বলে জানাযায়, করোনা পরিস্থিতিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তাদেরকে যে উপহার (অনুদান) প্রদান করা হয়েছে তারা তা পাননি।

তারা জানান, যখন এই উপহারের বিষয়ে মসজিদ কমিটির কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে, তখন কমিটির লোকজন তাদেরকে বলেছেন সেই অনুদান ইমামদের জন্য নয়,সেগুলো মসজিদের ফান্ডের জন্য দেয়া হয়েছে। অথচ খবর নিয়ে জানা গেছে এই অনুদান শুধুমাত্র মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খতিবদের জন্য দেয়া হয়েছে। অনুদান বিতরণের সময় সত্যতা যাচাই করতে এবং মসজিদের সিল সাক্ষর দেয়ার জন্য মসজিদ কমিটির লোকজনকে রাখা হয়েছে। মুলত এই অনুদান শুধুমাত্র মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খতিবদের জন্য দেয়া হয়েছে।

যেখানে সরকার বাংলাদেশের বিভিন্ন মসজিদের দায়িত্বে থাকা ইমাম, মুয়াজ্জিন এবং খতিবদের অসহায়ের কথা চিন্তা করে এই উপহার দেয়ার ঘোষনা দিয়েছেন এবং ইতিমধ্যে বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসক ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ইমাম মুয়াজ্জিনদের মাঝে এই অনুদান প্রদান করছেন।

সেখানে দেখা গেছে চাঁদপুরের কিছু কিছু মসজিদ কমিটির লোকজন সেই অনুদান ইমাম, মুয়াজ্জিনদেরকে বুঝিয়ে না দিয়ে তারা তা মসজিদ ফান্ডে জমা রাখছেন। কিংবা কেউ কেউ নিজেদের কাছেই তা রেখে দিয়েছেন। আর এই প্রসঙ্গে ইমাম কিংবা মুয়াজ্জিন তা জানতে চাইলে ভিভিন্ন টালবাহানা করে এরিয়ে যাচ্ছেন।

তাই দেশের এই সংকটময় মুর্হুতে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া অনুদান যেনো সঠিক ভাবে প্রকৃত ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খতিবরা বুঝে পায়, সেজন্য এ বিষয়ে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসন ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন তালিকা অনুযায়ী সবাইকে ডেকে আলোচনার মাধ্যমে প্রকৃত সত্যটা যাচাই করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার প্রয়োজন বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

এ বিষয়ে চাঁদপুর ইসলামিক ফাইন্ডেশনের উপ পরিচালক মোহাম্মদ খলিলুর রহমান জানা নয়, এটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তারই উপহার হিসেবে বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খতিবদেরকে দেয়া হয়েছে। এই অনুদান তো মসজিদ কমিটির ফান্ডে রাখার প্রশ্নই উঠেনা। কেউ যদি এমন অনিয়ম করে থাকে তাহলে আমরা খবর নিয়ে তাদেরকে ডেকে অবশ্বই ভুক্তভোগীদের অনুদান পাওয়ার ব্যবস্থা করে দিবো।

প্রতিবেদক:কবির হোসেন মিজি,৩ জুন ২০২০

ইন্টারনেট কানেকশন নেই