Home / সারাদেশ / চাঁদপুরে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

চাঁদপুরে জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

বিএনপির চেয়ারপার্সন ও তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সু-চিকিৎসা করা এবং তাঁর মুক্তির দাবীতে চাঁদপুর জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার(৮ ডিসেম্বর) কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে চাঁদপুর জেলা বিএনপি কার্যালয়ে এই বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বিকেল থেকেই সমাবেশকে ঘিরে চাঁদপুর পৌর ও সদর থানা বিএনপির নেতাকর্মীরা খন্ড খন্ড মিছিল আকারে দলীয় কার্যালয়ে সমবেত হয়। অপরদিকে শুরু থেকেই বরাবেরর মতো বিএনপি কার্যালের সামনে পর্যপ্ত পুলিশ মোতায়েন থাকতে দেখা যায়।

জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক অ্যাড. সলিম উল্যাহ সেলিমের ও যুগ্ম-আহ্বায়ক মুনির চৌধুরীর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন যুগ্ম-আহ্বায়ক মাহাবুব আনোয়ার বাবলু, দেওয়ান মো. সফিকুজ্জামান, আক্তার হোসেন মাঝি, চাঁদপুর সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি শাহাজালাল মিশন, সাধারণ সম্পাদ অ্যাড. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি অ্যাড. কামাল উদ্দিন আহমেদ, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাদল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী, জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মানিকুর রহমান মানিক, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. নুরুল আমিন খান আকাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ বাহার, জেলা কৃষক দলের সভাপতি এনায়েত উল্যাহ খোকন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক সলেমান ঢালী, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন পাটওযারী প্রমুখ।

বাক্তারা বলেন, ডিসেম্বর মাস বাঙালী জাতির বিজয়ের মাস। আর আজকের ৮ ডিসেম্বর চাঁদপুর মুক্ত দিসব। অথচ একটি স্বাধীন দেশের নাগরীক হয়ে দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্যে আমাদের আন্দোলন করতে হচ্ছে। এটি বাঙালী জাতির জন্যে লজ্জা এবং কলঙ্ককের।
একটি স্বাধীন দেশের চিত্র কখনোই এমন হতে পারে না।

বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগ মুখে স্বাধীনতার স্বপক্ষের লোক বললেও কার্যত তাদের চরিত্র ভিন্ন। তারা অবৈধভাবে ক্ষমাতায় টিকে থাকতে দেশে অপশাসন কায়েম করেছে। একটি মিথ্যা মামলায় আমাদের চেয়ারপার্সনকে কারাবন্দী করে রেখেছে। তাকে সুচিকিৎসা নিতেও দিচ্ছে না। অথচ শেখ হাসিনা বলেছেন, খালেদা জিয়া নাকি রাজার হাওলাতে আছে।

বক্তারা আনে বলেন, আগামী ১২ তারিখে আমাদের নেত্রীকে মুক্ত দেখতে চাই, তা না হলে আমরা রাজপথে নেমে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করবো। আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে। একযোগে আমাদের রাজপথে নামতে হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন বিএনপি নাকি ২ মিনিটও রাজপথে দাঁড়াতে পারবেনা। তাদের বলতে চাই আপনারা পুলিশ বাদ দিয়ে রাজপথে আসেন দেখবো কে কতক্ষণ দাঁড়াতে পাড়ে।

প্রতিবেদক:আশিক বিন রহিম