Home / চাঁদপুর / চাঁদপুরে ঔষধের দোকান ছাড়া বিকেল ছয়টা থেকে দোকান পাট বন্ধ ঘোষণা
লকডাউনের প্রথম দিকে চাঁদপুর জেলা শহরের চিত্র (ফাইল ছবি)

চাঁদপুরে ঔষধের দোকান ছাড়া বিকেল ছয়টা থেকে দোকান পাট বন্ধ ঘোষণা

করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক-উৎকণ্ঠা আর জেলা প্রশাসনের কঠোর নির্দেশনার পর হঠাৎ করেই স্তব্ধ হয়ে পড়েছে পুরো চাঁদপুর। জেলা প্রশাসনের কঠোর নিষেধাজ্ঞায় আজ সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে হঠাৎ করেই চাঁদপুর শহরের প্রধান সড়কগুলোর পাশে বিপণিবিতানের পাশাপাশি পাড়ামহল্লর ছোট ছোট দোকানগুলো বন্ধ হয়ে যায়। এতে করে রাস্তাঘাটে সাধারণ মানুষের চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। ফলে পুরো চাঁদপুর শহর জুড়ে নেমে আসে এক ভূতুড়ে পরিবেশ।

৪ এপ্রিল শনিবার চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মো. মাহজেদুর রহমান খান তার ফেইসবুক আইডিতে ঘোষণা দেন,করোনাভাইরাস মোকাবেলার জন্য শনিবার বিকাল ৬ টা থেকে প্রতিদিন (পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত) রাতের বেলা চাঁদপুর জেলার ঔষধের দোকান ব্যতীত সকল দোকান পাট বন্ধ থাকবে। দিনের বেলা পূর্বের ঘোষণা মোতাবেক অন্যান্য দোকান খোলা থাকবে। এ নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই নির্দেশনাটি পুরো চাঁদপুর শহরে জেলা তথ্য অফিস কর্তৃক প্রচার করা হয়। পাশাপাশি চাঁদপুরের পুলিশ প্রশাসন রাস্তায় নেমে জনসাধারণকে ঘরে যেতে নির্দেশ দেন। মূলত এই ঘোষণার পর থেকেই চাঁদপুর শহরে সন্ধ্যার পরেই সকল প্রকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। বন্ধ হয়ে যায় পথে ঘাটে মানুষের চলাচল। মানুষজন তাদের নিজ তাগিদেই ঘরে ফিরে যেতে শুরু করে।

জানাযায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি চাঁদপুর জেলা জেলা প্রশাসন থেকে সকল প্রকার গণজমায়েত ও ঔষদের দোকান ছাড়া সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়। তবে পহেলা এপ্রিল থেকে চাঁদপুর শহরে বেশ কিছু হোটেল খোলা রাখার অনুমতি দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রশাসন থেকে জনসাধারণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঘরে থাকার আহ্বান করা হয়। এছাড়াও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে জেলা প্রশাসন পুলিশ বিভাগ থেকে ত্রান সহায়তা দেওয়া হয়। কিন্তু এতকিছুর পরেও প্রশাসনের নির্দেশনাকে অমান্য করে রাস্তায় নেমে আসে মানুষ। আর সন্ধ্যার পরে শহর এলাকায় রাস্তাঘাটে মানুষের আনাগোনা বাড়তে থাকে।

এদিকে গত কয়েক দিনে দেশে করোনা রোগীর সংখ্যা ক্রমশই বৃদ্ধি পেতে থাতে। এতে করে জেলাবাসীর সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিশ্চিত করতে প্রশাসন আরো বেশি কঠোর হতে শুরু করে।

জেলার সচেতন মহলের দাবি করোনা ভাইরাসের এই মহামারী পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে প্রশাসনকে আরও কঠোর হওয়া প্রয়োজন। না হয় করোনায় আক্রান্ত দেশের অন্য দশটি জেলার নে চাঁদপুরেও করনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রতিবেদক: আশিক বিন রহিম,৪ এপ্রিল ২০২০