Home / চাঁদপুর / কর্মবিরতির সাথে অন্ধকারে চাঁদপুর শহর
lamppost

কর্মবিরতির সাথে অন্ধকারে চাঁদপুর শহর

চাঁদপুর পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টানা তিন দিন পূর্ণদিবস কর্মবিরতির সাথে অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়ে গেলো চাঁদপুর শহর।

সারা দেশের ন্যায় চাঁদপুরেও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ ৩ দিনের পূর্ণ দিবস কর্মবিরতির ২য় দিন সোমবার (২৯ জানুয়ারি) অতিবাহিত করেছে।

এ কর্মবিরতির পালন করতে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে শহরের বাসিন্দারা। কর্মবিরতি পূর্ণদিবস হওয়ায় এ তিন দিন কোনো সেবাই পাচ্ছেন না পৌরবাসী।

বিশেষ করে প্রতিদিন সন্ধ্যায় শহরের ল্যাম্পপোস্টগুলোতে আলো জ্বলার কথা থাকলেও কর্মবিরতির শুরু থেকেই অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে শহরের অলিগলি।

এতে করে পাড়া-মহল্লায় অনেকটা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বাসিন্দারা। এদের কয়েকজনের সাথে কথা হলে, তারা অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

পালপাড়ার বাসিন্দা রিয়াজুলসহ ক’জন জানায়, ‘কি হলো জানি না, বাতিগুলো এমনিতেই থাকে নষ্ট, যে কয়েকটি ভালো ছিলো সেগুলোও আজকে দু’দিন ধরে বন্ধ আছে। বাসা থেকে বের হওয়াটাও নিরাপদ মনে করছি না। কারণ বাতি না থাকলে পাড়া মহল্লায় অপরাধীদের দৌরাত্ম বেড়ে যায়।’

পুরাণবাজারের বাসিন্দা ফজলুল হক জানায়, মূলসড়ক ছাড়া বিভিন্ন অলিগলির রাস্তাগুলো আঁকাবাকা থাকায় আলো স্বল্পতায় বিভিন্ন যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। পৌরবাসীর কথা চিন্তা করে কর্তৃপক্ষ অতিশীঘ্রই সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা নিবেন এমনটাই দাবি।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে সারা দেশের ন্যায় চাঁদপুরেও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ ৩ দিনের পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি। মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) পর্যন্ত এ কর্মসূচি চলবে।

রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতনভাতা ও পেনশন পাওয়ার দাবিতে চাঁদপুরে টানা ৩ দিন পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি শুরু হয়েছে। তাদের দাবি পৌরসভায় যারা চাকুরি করে তারা দেশ উন্নয়নের সবচেয়ে বড় ভ‚মিকা পালন করে থাকে। এক দেশে দু’ নীতি চলতে পারে না।

বর্তমানে কর্মবিরতির মধ্যে পানির লাইন ছাড়া পৌরসভার সকল সেবা বন্ধ রয়েছে। আন্দোলনকারীদের দাবি মানা না হলে, পৌরবাসীর পানির লাইন সেবাও বন্ধ করে দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

প্রতিবেদক- মাজহারুল ইসলাম অনিক
: আপডেট, বাংলাদেশ সময় ১০:৩৩ পিএম, ২৯ জানুয়ারি ২০১৮, সোমবার
ডিএইচ

শেয়ার করুন