Home / উপজেলা সংবাদ / মতলব উত্তর / করোনা প্রতিরোধে ছেংগারচর বনিক সমিতির দোকানপাট বন্ধ

করোনা প্রতিরোধে ছেংগারচর বনিক সমিতির দোকানপাট বন্ধ

প্রানঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমন ঠেকাতে মতলব উত্তর উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশ মোতাবেক ছেংগারচর পৌর বনিক সমবায় সমিতি লিঃ এর আওতাধীন উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ছেংগারচর বাজারে বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকে দোকানপাট বন্ধ ছিলো।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএম জহিরুল হায়াত স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক গতকাল বৃহস্পতিবার ছেংগারচর পৌর বনিক সমবায় সমিতি লিঃ এর পক্ষ থেকে ছেংগারচর বাজারের আগামীকাল সাপ্তাহিক হাট শুক্রবার (২৭ মার্চ) থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কাঁচাবাজার, খাবার ও ঔষধের দোকান, হাসপাতাল এবং জরুরি সেবাসমূহ মৃতদেহ দাফন/সৎকার ব্যতিত সকল প্রকার দোকানপাট বন্ধ থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এ ব্যাপারে বাজারের ব্যবসায়ী ও জনসাধারণকে অবহিত করার জন্য বৃহস্পতিবার মাইকিং করা হয়েছে। এ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছেংগারচর বাজার পৌর বনিক সমবায় সসমিািত লিঃ এর সভাপতি আলহাজ¦ মনির হোসেন বেপারী,সাধারণ সম্পাদক মোঃ নাসির ফরাজী ও সমিতির উপদেষ্টা মোঃ কাউছার মেহেদী।

উল্লেখ্য, প্রানঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমন ঠেকাতে মতলব উত্তর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে যানবাহন চলাচল না করার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। একই সাথে উপজেলাবাসী ও পৌর বাসিন্দাদের কে বাসায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং মাইকিং করা হয়েছে প্রত্যেক নামাজের আগে ও পরে মসজিদ থেকে মাইকিং করে ঘর থেকে বাহির না হওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। সেই নিদের্শনা মোতাবেক প্রয়োজন ছাড়া কোনো যানবাহন চলাচল করছে না। এবং জনসাধারণ ও বাসা থেকে বের হচ্ছে না। এদিকে উপজেলা ও পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থান নিয়েছে পুলিশ এবং আইন অমান্যকারীদের সতর্কতামূলক শাস্তি দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএম জহিরুল হায়াত কর্তৃক স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিরতে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত যানচলাচল ও দোকানপাট বন্ধ থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। নির্দেশনায় বলা হয়- উপজেলার সকল ধরনের সভা-সমাবেশ, সেমিনার, সামাজিক অনুষ্ঠান, ধর্মীয় সমাবেশ, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড, চায়ের স্টল, হোটেল রেস্তোরায় আড্ডাসহ সকল প্রকারের গণজামায়েত পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হল।

কাঁচাবাজার, খাবার ও ঔষধের দোকান, হাসপাতাল এবং জরুরি সেবাসমূহ চালু থাকবে। খাদ্যদ্রব্য, ঔষধ, চিকিৎসা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ব্যতিত কেউ নিজ গৃহ থেকে বের হবেন না। জরুরি প্রয়োজনে ঘর হতে বের হতে হলে অবশ্যই প্রমাণপত্রসহ বের হতে হবে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তা দেখাতে হবে। জরুরি প্রয়োজন ব্যতিত সকল প্রকার অটো রিকশা এবং সিএনজি চলাচল বন্ধ থাকবে।

কামাল হোসেন খান,২৬ মার্চ ২০২০

ইন্টারনেট কানেকশন নেই