Home / চাঁদপুর / করোনাকালীন সময়ে উদ্যোক্তা হয়ে নতুন করে জীবন শুরু করেছি

করোনাকালীন সময়ে উদ্যোক্তা হয়ে নতুন করে জীবন শুরু করেছি

চাইলেই যে সকল হাতাশা মুছে ফেলে নতুন করে শুরু করা যায়, তা করে দেখিয়েছেন চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার উয়ারুক এলাকার আবু তাহেরের ছেলে আহাদ ইসলাম। দুইবার বড় ধরনের ব্রেন টিউমার অপারেশন থেকে বেঁচে ফিরে এবং করনোকালীন সময়ে নতুন করে উদ্যোক্তা হয়ে জীবন শুরু করেছেন। এক কথায় বলা চলে অনলাইনে মাছের কেনা বেচা ব্যবসা করে হয়েছেন স্বাবলম্বী।

এ নিয়ে মুখোমুখি কথা হয় আহাদ ইসলামের সাথে। তিনি জানান, আমি চাঁদপুর সরকারি কলেজে অনার্স ৪র্থ বর্ষে পড়াশোনা করছি। এর মধ্যে আমার দু’বার ব্রেন টিউমার অপারেশন হয়। এছাড়া শুরু হয় করনোভাইরাস। যার কারনে আমার পরিবারের মাঝে আার্থিক সমস্যা দেখা দেয়। আমি পরিবারের বড় ছেলে হিসেবে সকল পিছনে ফেলে নতুন করে শুরু করার চেষ্টা করি। অনেক চাকরি খুজেও যখন চাকরি পাচ্ছিনা, তখন নিজ থেকে উদ্যোক্তা হওয়ার চিন্তা করি। তখন আমি অনলাইনে মাছের হাট নামক একটি পেজ খুলি। এ থেকেই আমার অনলাইন ব্যবসা শুরু হয়।

সফলতার বিষয় নিয়ে আহাদ ইসলাম বলেন, মাত্র ৪ থেকে ৫ মাস হয়েছে আমি এই অনলাইন মাছের ব্যবসা শুরু করেছি। মাত্র ২ মাসেই আমি লক্ষাধিক টাকা আয় করেছি। তাই যারা এখনো পড়াশুনার পাশাপাশি চাকরি খুজছে কিন্তু চাকরি পাচ্ছেনা, তাদের উদ্যোক্তা হওয়া প্রয়োজন। তাহলেই সাফল্য অর্জন করা যাবে।

অনলাইন ব্যবস্থা আরো বড় করার বিষয় নিয়ে আহাদ ইসলাম বলেন, আমি প্রথমে অনলাইনে তাজা ইলিশ বিক্রি শুরু করি। পরে দেখি ক্রেতাদের অন্যান্য মাছেরও চাহিদা রয়েছে। তখন ইলিশের সাথে দেশিও মাছ বিক্রি শুরু করি। এখন মাছের সাথে আমি বিভিন্ন প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি শুরু করবো। এর জন্য বসে থাকলে চলবে না, বিভিন্ন ভাবে অনলাইন ব্যবসাকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করতেছি। আমি প্রতিদিন শাহরাস্তি থেকে চাঁদপুর মাছঘাটে এসে মাছ ক্রয় করে থাকি।

করোনাকালীন সময় নিয়ে আহাদ ইসলাম বলেন, করোনায় আমাদের অনেক জীবন পাল্টে গেছে। অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। আবার কেউ কেউ এখনো চাকরির পিছনে ছুটছেন। আমি মনে করি চাকরির পিছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হওয়া প্রয়োজন। না হলে আমাদের কষ্টের মাঝে দিন কাটাকে হবে। সক কিছু হাতের নাগালে, শুধু আমাদের একটি উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

প্রতিবেদক:শরীফুল ইসলাম,১৩ নভেম্বর ২০২০