Home / উপজেলা সংবাদ / কচুয়া / কচুয়ার তেগুরিয়া-বুধুন্ডার পৌনে ২ কি.মি সড়কের কাজ সমাপ্তির পথে

কচুয়ার তেগুরিয়া-বুধুন্ডার পৌনে ২ কি.মি সড়কের কাজ সমাপ্তির পথে

চাঁদপুরের কচুয়ার তেগুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মার্কেট হতে বুধুন্ডা বকাউল বাড়ি পর্যন্ত প্রায় পৌনে ২ কি.মি কাঁচা রাস্তা পাকাকরণের কাজ সমাপ্তির পথে রয়েছে। স্থানীয় গ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের প্রেক্ষিতে এ রাস্তার পাকা করণের কাজ সঠিক ও গুণগত ভাবে হওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে আনন্দ ও উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

সরেজমিনে জানা গেছে- তেগুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মার্কেট হতে বুধুন্ডা বকাউল বাড়ি পর্যন্ত প্রায় পৌনে ২ কি.মি কাঁচা রাস্তা পাকাকরণের কাজ ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরের উপজেলার এলজিইডি প্রকল্পের আওতায় ১ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে অনুমোদন হয়।

কিন্তু রাস্তাটি অধিক নতুন হওয়ায় এবং বুধুন্ডা গ্রামের ডা.জসিম উদ্দিন প্রধানের বাড়ির অংশে ২ শ’৪০মিটার রাস্তায় বাড়িওয়ালাদের রাস্তা দখল জটিলতায় থাকায় কোনো ঠিকাদার কাজ করতে রাজি হয়নি। পরবর্তীতে ২০১৮ সালে মেসার্স সিকাদর এসোসিয়েট এর লাইসেন্সে মো.জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী সড়কের পাকাকরণের কাজটি চ্যালেঞ্জিংভাবে গ্রহণ করে।

ঠিকাদার মো.জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী জানান, ২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরে রাস্তাটির মালামালের দাম যে মূল্যে ধরা হয়েছিল তার অধিক মূল্যে বর্তমানে মালামাল ক্রয়ে করে উপজেলা এলজিইডি অফিসের কর্মকর্তা ও স্থানীয় এলাকাবাসীর আন্তরিক সহযোগিতায় ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে রাস্তাটির কাজ শুরু হয়ে বর্তমানে ৯৫% রাস্তা পাকাকরণের কাজ সম্পূর্ণ শেষ করেছি। বাকি ২ শ’৪০ মিটার রাস্তার কাজ চলছে।

স্থানীয়রা জানান, তেগুরিয়া-বুধুন্ডা রাস্তাটি পাকাকরণ এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি ছিল। বিশেষ করে এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে সাবেক স্বরাষ্ট্রন্ত্রী ড.মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি ২০১৮ সালের ৭ মে রাস্তাটির ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন। বর্তমানে রাস্তার কাজ দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদার কর্তৃক সঠিকভাবে সমাপ্ত হওয়ায় এলাকাবাসী খুবই আনন্দিত।

কাজের স্থানীয় ঠিকাদার মো.মতিউর রহমান হিরণ ও হানিফ পাটওয়ারী জানান, কচুয়া উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দ জাকির হোসেন,উপ-সহকারী প্রকৌশলী (এসও) মো. কামাল হোসেন ও স্থানীয় লোকদের আন্তরিক সহযোগিতায় সড়কের কাজ প্রায় শেষের পথে।

তেগুরিয়া-বুধুন্ডা গ্রামীণ জনপদের রাস্তার পাকাকরণের কাজ করায় সাবেক স্বরাষ্ট্রন্ত্রী ড.মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি, কচুয়া উপজেলা প্রকৌশলী,উপ-সহকারী (এসও) ও কাজের ঠিকাদারকে শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন এলাকাবাসী ।

প্রতিবেদক : জিসান আহমেদ নান্নু
১৫ জুন ২০১৯