Home / ভিডিও / আমের মুকুলে ছেয়ে গেছে মতলব উত্তরের আমবাগান

আমের মুকুলে ছেয়ে গেছে মতলব উত্তরের আমবাগান

Mar 06, 2015 @ 07 : 40 pm

কামাল হোসেন খান মতলব:
বাংলার ঋতুতে বসন্ত আসতে না আসতেই আমের মুকুলে ছেয়ে গেছে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার আমবাগান। আমের মুকুলের ঘ্রাণে মৌ মৌ করছে সর্বত্র। চাঁদপুরের মতলবের আমবাগান মালিকেরা ও গ্রামের জনসাধারন জানান, মাঘ মাসে প্রচন্ড শীত ও কুয়াশা থাকায় এবার একটু দেরিতে আমের মুকুল এসেছে। কৃষিবিদরাও এমনটি জানিয়েছেন। প্রকৃতি অনুকুলে থাকলে এবার আমের বাম্পার ফলন আশা করছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা।
সময়ের পালাবদলে ও ঋতু বৈচিত্রে শীত শেষে এসেছে বসন্ত। প্রকৃকৃতিতে নানা ফুলের সঙ্গে সৌরভ ছড়াচ্ছে আমের মুকুলও। মুকুলের ঘ্রাণে মৌ মৌ মতলব উত্তর উপজেলার চারদিক। কোথাও কোথাও মুকুলের অপেক্ষায় আমবাগান। প্রতিটি গ্রাম এলাকায় খোজ খবর নিয়ে যানা যায়যে প্রচুর পরিমান আমের মুকুল (স্থানীয় ভাষায় বোল) ধরেছে কিন্তু কুয়াশায় বা পোকামাকড়ে নষ্ট করে ফেলবে কিনা এ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছেন এলাকাবাসি।
এলাকাবাসি জানায়, উপজেলার কৃষি অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা যদি একটু দেখা শোনা সাহায্য সহযোগিতা বা জনসাধারনের আমের মুকুল বিষয়ে যথাসময়ে পরামর্শ প্রদান করে সহায়তা করে তাহলে হয়ত মতলবের আম দেশের আমের চাহিদা পূরণে কিছুটা সহায়ক হবে এবং নিজেরাও লাভবান হতে পারবেন। মতলব উত্তর উপজেলার ঘনিয়ার পাড় গ্রামের বাগান মালিক শাহিন মোল্লা ও ছেংগারচর বাজার এলাকার মোঃ মফিজুল ইসলাম তাদের বাগানের আমগাছ গুলোতে কয়েকদিন আগে মুকুল এসেছে বলে জানান।
এ এলাকার অন্যান্য আমগাছেও মুকুল আসতে শুরু করেছে। শাহিন মোল্লা বলেন, এ বছর একটু দেরিতে আমের মুকুল এসেছে। সেই সাথে কুয়াশার প্রভাবও রয়েছে। এতে করে মুকুল ঝরে পড়ার আশঙ্কা করেছেন তিনি।
এ বিষয়ে উপজেলার সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ুম মজুমদার জানান, আমগাছে মুকুল আসতে শুরু করেছে। আশা করছি এ বছর ফলন ভালো হবে। তাই বাগান মালিকরা এখন আমের মুকুল দেখে ভীষণ খুশী।

ইন্টারনেট কানেকশন নেই